দেশের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদ থেকে ইস্তফা অব্যাহত, এবার প্রধানমন্ত্রীর আর্থিক উপদেষ্টা পরিষদ থেকে ইস্তফা দিলেন সুরজিৎ ভাল্লা

একের পর এক পদত্যাগ। সোমবারই আরবিআই গভর্নরের পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছেন উর্জিত প্যাটেল। যা নিয়ে বিরোধীরা আঙুল তুলেছে বিজেপি সরকারের দিকে। প্রত্যেকটি সরকারি প্রতিষ্ঠানের ওপর বিজেপি সরকারের অযাচিত হস্তক্ষেপ, সংস্থাগুলির স্বাধিকারভঙ্গ, আর তার জেরেই একের পর এক উচ্চপদস্থ ব্যক্তি সরে দাঁড়াচ্ছেন বলে অভিযোগ উঠছে। বিরোধীদের অভিযোগ, সিবিআই, আরবিআই, নির্বাচন কমিশন থেকে শুরু করে দেশের সমস্ত গুরুত্বপূর্ণ প্রতিষ্ঠানের স্বাধীনতা আজ বিপন্ন।
উর্জিত প্যাটেলের ইস্তফার ২৪ ঘন্টা কাটতে না কাটতেই আরও একটা ইস্তফার খবর প্রকাশ্যে এলো। এবার খোদ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর আর্থিক উপদেষ্টা পরিষদ থেকে সরে দাঁড়ালেন অর্থনীতিবিদ সুরজিৎ ভাল্লা। বিজেপির এক মুখপাত্র মঙ্গলবার এই ইস্তফার কথা ঘোষণা করেন। সুরজিৎ ভাল্লা নিজেও সোশ্যাল মিডিয়ায় জানিয়েছেন তাঁর পদত্যাগের কথা।
সুরজিৎ ভাল্লা ঘোষণা করেছেন, প্রধানমন্ত্রীর আর্থিক উপদেষ্টা পরিষদের পার্ট টাইম সদস্যপদ থেকে ইস্তফা দিয়েছেন তিনি।
নীতি-আয়োগের সদস্য বিবেক দেবরায় পরিচালিত অ্যাডভাইসরি কাউন্সিল টু দ্য প্রাইম মিনিস্টার (EAC-PM)-এর পার্ট টাইম উপদেষ্টার পদে অর্থনীতিবিদ রথীন রায়, অসীমা গয়াল ও শমীকা রবির সঙ্গে ছিলেন ভাল্লা। সূত্রের খবর, ১ লা ডিসেম্বর তিনি তাঁর দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি নিয়েছেন। নরেন্দ্র মোদী সরকার ২০১৭ সালে ম্যাক্রোইকোনমিক ইস্যুতে নজরদারির জন্য এই পরিষদ গঠন করে।
চলতি বছরের অক্টোবর মাসে সুরজিৎ ভাল্লা মন্তব্য করেছিলেন, মোদী সরকারের শেষ চার বছর ভারতীয় অর্থনীতির সবচেয়ে ভালো সময়। এহেন সুরজিৎ ভাল্লা কেন হঠাৎ পদত্যাগ করলেন তা নিয়ে অবাক ওয়াকিবহাল মহল। সূত্রের খবর, সুরজিৎ ভাল্লা অন্য সংস্থায় কাজ করতে চান বলেই পদত্যাগের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। তবে ঠিক কী কারণে ভাল্লা ইস্তফা দিয়েছেন তা পুরোপুরি খোলসা হয়নি এখনও পর্যন্ত।

Comments
Loading...