এবার বেতনে কোপ দ্য হিন্দুর কর্মীদের, এপ্রিল থেকে ২৫% পর্যন্ত বেতন কমাচ্ছে সংস্থা, দাবি newslaundry এর প্রতিবেদনে

করোনাভাইরাস এবং তা রুখতে দেশজুড়ে লকডাউনের জেরে বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম কর্মীদের বেতন কেটেছে, বিনা বেতনে অনির্দিষ্টকালের জন্য ছুটিতে পাঠিয়েছে। এমনকী ছাঁটাইও হয়েছে। এবার তাতে যুক্ত হল দেশের প্রথমসারির সংবাদমাধ্যম ‘দ্য হিন্দু’। এপ্রিল মাস থেকে দ্য হিন্দুর কর্মীদের ২৫ শতাংশ পর্যন্ত বেতন হ্রাসের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সংশ্লিষ্ট সংবাদমাধ্যম।

ইংরেজি নিউজপোর্টাল newslaundry.com এর একটি প্রতিবেদন অনুযায়ী, দ্য হিন্দুর সিইও এল ভি নবনীত একটি হাতে লেখা চিঠিতে কর্মীদের জানিয়েছেন, ১ এপ্রিল থেকে তাঁদের বেতন কাটা হচ্ছে। কত শতাংশ বেতন কাটা হচ্ছে সেটাও জানিয়ে দেওয়া হয়েছে।

‘দ্য হিন্দুর যে কর্মীদের বেতন বছরে ৬ লক্ষ টাকা, তাঁরা ছাড় পেয়েছেন। বছরে ৬ থেকে ১০ লক্ষ টাকা বেতন পান যাঁরা, তাঁদের ৮ শতাংশ করে বেতন কাটা হচ্ছে। একইভাবে বছরে ১০ থেকে ১৫ লক্ষ টাকা বেতন প্রাপকদের ১২ শতাংশ এবং ১৫ থেকে ২৫ লক্ষ টাকা যাঁরা বছরে বেতন পান তাঁদের ১৬ শতাংশ বেতন কেটে নেওয়া হচ্ছে। এছাড়া, বছরে ২৫ থেকে ৩৫ লক্ষ টাকা বেতন প্রাপকদের ২০ শতাংশ এবং ৩৫ লক্ষের উর্ধ্বে বেতন হলে ২৫ শতাংশ পর্যন্ত বেতন কাটছাঁট করা হচ্ছে বলে জানিয়েছে সংস্থা।

করোনার কারণে যে ‘নিউ নর্মাল’ এর দিকে আমাদের এগোতে হচ্ছে তাতে সব কর্মীর সাহায্য প্রয়োজন। বর্তমান পরিস্থিতিতে সংস্থার ঘাড়ে প্রচুর আর্থিক বোঝা চেপেছে। হোল-টাইম ডিরেক্টর থেকে ইন্ডিপেনডেন্ট ডিরেক্টররাও স্বেচ্ছায় নিজেদের বেতন কম নিচ্ছেন। এই পরিস্থিতিতে সব কর্মীর সহযোগিতার আহ্বান করেছেন দ্য হিন্দুর সিইও।

দেশজুড়ে লকডাউনের মধ্যে হিন্দুস্তান টাইমস, ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস, দ্য কুইন্ট, টাইমস অফ ইন্ডিয়া, নিউজ নেশন, এনডিটিভির মতো সংবাদমাধ্যমগুলি কর্মীদের স্যালারি কেটে নিয়েছে। অভিযোগ, কেন্দ্রের অ্যাডভাইজরি সত্ত্বেও অনেক কর্মীর চাকরি চলে গিয়েছে। যা নিয়ে সাংবাদিক সংগঠনগুলি সুপ্রিম কোর্টে মামলাও দায়ের করেছে।

Comments
Loading...