বিগড়ে যাবে! মেয়েদের মোবাইল দেওয়ার বিরোধিতা যোগী রাজ্যের মহিলা কমিশন সদস্যের

মেয়েদের মোবাইল দেওয়া উচিত নয়, মোবাইল ফোন ব্যবহারের কারণেই মেয়েরা বিগড়ে যাচ্ছে। মন্তব্য যোগী রাজ্যের মহিলা কমিশনের সদস্য মীনা কুমারীর। বুধবার অলিগড়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলার সময় এমনই বেফাঁস মন্তব্য করে বসেন তিনি।

একজন মহিলা কমিশনের সদস্যের এধরনের বিতর্কিত মন্তব্য প্রকাশ্যে আসতেই সমাজের নানা মহলে সমালোচনার ঝড় ওঠে।

মেয়েদের বিপথে যাওয়ার পেছনে মায়েদেরও ভূমিকাকে দায়ী করেছেন ওই আধিকারিক। তাঁর কথায়, সমাজে মহিলাদের উপর ক্রমাগত বেড়ে চলা অপরাধ নিয়ে ভাবনাচিন্তা করার সময় এসেছে। আর এই অপরাধের ক্ষেত্রে মোবাইল একটা মূখ্য ভূমিকা হয়ে দাঁড়ায়। মেয়েরা মোবাইলে ঘন্টার পর ঘন্টার পর কথা বলে। মোবাইলের মাধ্যমেই ছেলেদের সঙ্গে ওঠাবসা করে।

মীনা কুমারীর অভিযোগ, বাড়ির অভিভাবকরা মেয়েদের ফোন পরীক্ষা করে দেখেন না। ফলে বাড়ির লোকেরা জানতেই পারেন না মেয়েরা ফোনে কথা বলতে বলতে কখন কোন ছেলের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ হয়ে যায়। তারপরেই তাঁর নিদান, এই সমস্যার একটাই সমাধান মেয়েদের মোবাইল ফোন ব্যবহার করতে দেওয়া যাবে না। সেই সঙ্গে তিনি এও বলেন, মোবাইল ব্যবহার করতে দিলেও সেক্ষেত্রে ফোনে কী করছে তা বাড়ির অভিভাবকদের চোখে চোখে রাখতে হবে।

মীনা কুমারীর দাবি, মেয়েকে বড় করার ক্ষেত্রে মায়েদের ভুমিকাটাই অধিক গুরুত্বপূর্ণ। মেয়েরা বিগড়ে গেলে সেক্ষত্রে দায়ী মায়েরাই।

মীনা কুমারীর এই বক্তব্য প্রকাশ্যে আসতেই বিরোধীদের কটাক্ষ, এই একুশ শতকে একজন মহিলা কমিশনের সদস্য কী ভাবে এধরনের মন্তব্য করতে পারেন সেটা ভেবেই অবাক হচ্ছি আমরা।

Comments
Loading...