জবরদস্তি আঙুলে কালি, হাতে ৫০০ টাকা, উত্তর প্রদেশে রাতের অন্ধকারে বিজেপির বিরুদ্ধে ভোট প্রভাবিত করার চাঞ্চল্যকর অভিযোগ

ভোটের আগের রাতে বাড়ি বাড়ি গিয়ে হাতে কালি লাগানোর চাঞ্চল্যকর অভিযোগ বিজেপির বিরুদ্ধে। অভিযোগ, গ্রামবাসীদের হাতে ৫০০ টাকা করে দিয়ে বলা হয়, রবিবার তাদের আর ভোট দিতে যাওয়ার দরকার নেই, বিজেপি তাদের হয়ে ভোট দিয়ে দেবে। চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর প্রদেশের চান্দৌলি কেন্দ্রের তারাজীবনপুর গ্রামে।

রবিবার ভোট উত্তর প্রদেশের ১১ টি লোকসভা কেন্দ্রে। যার মধ্যে একটি এই চান্দৌলি কেন্দ্র। অভিযোগ, ভোটের ঠিক আগের রাতে অর্থাৎ শনিবার, ভোটারদের বাড়ি গিয়ে তাঁদের আঙুলে কালি লাগিয়ে দেন ৩ বিজেপি কর্মী। গ্রামবাসীদের বলা হয়, আর বুথে গিয়ে ভোট দেওয়ার প্রয়োজন নেই। সেই সঙ্গে প্রত্যেকের হাতে গুঁজে দেওয়া হয় পাঁচশো টাকা করে! তারাজীবনপুর গ্রামবাসীদের অভিযোগ, জোর করে তাঁদের আঙুলে কালি লাগিয়ে দেয় বিজেপি। সবার হয়ে ওই বিজেপি কর্মীরাই দিয়ে দেবেন বলেও জানানো হয় তাঁদের, এমনটাই জানান এক স্থানীয় বাসিন্দা।
ঘটনাটি প্রকাশ্যে আসার পর সমাজবাদী পার্টি এবং বহুজন সমাজ পার্টির কর্মীরা থানার সামনে বিক্ষোভ দেখান। পুলিশ জানিয়েছে, অভিযুক্ত তিন বিজেপি নেতার বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করা হয়েছে। সেইসঙ্গে ওই ভোটাররা তাঁদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারবেন বলেও জানান চান্দৌলির সাব ডিভিশনাল ম্যাজিস্ট্রেট কে আর হর্ষ। তবে এখনও একজনকেও গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ।
চান্দৌলি লোকসভা কেন্দ্র থেকে এবারও বিজেপির হয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন উত্তর প্রদেশের রাজ্য সভাপতি মহেন্দ্রনাথ পাণ্ডে। স্বয়ং রাজ্য সভাপতির কেন্দ্রে ভোটারদের প্রভাবিত করার এমন অভিযোগে অস্বস্তিতে পড়েছে গেরুয়া শিবির। লখনউয়ের বিজেপি মুখপাত্র হরিশ শ্রীবাস্তব অভিযোগ উড়িয়ে পাল্টা বিরোধী শিবিরের দিকে আঙুল তুলেছেন।

Comments are closed.