ভারত থেকে ব্যবসা গোটাতে পারে ভোডাফোন, জোর গুঞ্জন টেলিকম সেক্টরের অন্দরে

একদিকে ব্যবসায় তীব্র মন্দা, অন্যদিকে সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে কেন্দ্রকে তিন মাসের মধ্যে মাশুল বাবদ প্রায় ২৯ হাজার কোটি টাকা মিটিয়ে দিতে হবে ভোডাফোনকে। এই অবস্থায় যে কোনও দিন ভারত থেকে ব্যবসা গুটিয়ে নিতে পারে ভোডাফোন। ইংরেজি দৈনিক দ্য ইকনমিক টাইমসের একটি প্রতিবেদন অনুযায়ী, টেলিকম সংস্থাগুলির অন্দরে এই নিয়ে নানা জল্পনা চলছে।
সম্প্রতি ভোডাফোন আইডিয়া, ভারতি এয়ারটেল সহ একাধিক বেসরকারি টেলিকম সংস্থাকে লাইসেন্স ফি এবং স্পেক্ট্রাম ফি বাবদ ৯২ হাজার কোটি টাকা এজিআর দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। এদিকে নিয়ম করে প্রতিমাসেই লাখ লাখ গ্রাহক কমছে ভোডাফোন আইডিয়ার। শেয়ার বাজারেও তাদের ধ্বস অব্যাহত। এই রকম লাগামছাড়া দশায় ভোডাফোন যে কোনও দিন ভারত থেকে পাততাড়ি গোটাতে পারে বলে ওই দৈনিক খবর করেছে। সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশের পরিপ্রেক্ষিতে ভোডাফোন তার ঋণদাতাদের কাছে ঋণের বোঝা কমানোর আবেদন করছে বলে টেলিকম সংস্থা সুত্রের খবর। যদিও এই খবর পুরোপুরি ভিত্তিহীন বলে উড়িয়ে দিয়েছে ভোডাফোন। বুধবার ভোডাফোনের তরফে এক বিবৃতিতে দাবি করা হয়েছে, কোনও ঋণদাতার কাছেই তারা এই ধরনের কোনও আবেদন জানায়নি। বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ভোডাফোন তাদের সব ঋণ নিয়মিত মিটিয়ে চলেছে।
এদিকে সুপ্রিম কোর্টের রায় মেনে লাইসেন্স ফি ও স্পেক্ট্রাম ব্যবহারের চার্জ ও বকেয়া সহ কেন্দ্রকে প্রায় ৩৯ হাজার কোটি টাকা মেটাতে হবে ভোডাফোনকে। কিন্তু বর্তমানে ভোডাফোনের হাঁড়ির যে হাল, তাতে কেন্দ্রের বকেয়া মেটাতে গেলে দেউলিয়া হওয়ার আশঙ্কাও রয়েছে বলে মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল। সুপ্রিম কোর্টের রায়ে একেবারেই খুশি হতে পারেনি ভোডাফোন। ওই সংস্থা এক বিবৃতিতে জানিয়েছিল, শীর্ষ আদালতের রায়ে হতাশ তারা। এই রকম টালমাটাল পরিস্থিতিতে বিভিন্ন মহলে প্রশ্ন উঠছে, আদৌ ভারতে ভোডাফোন থাকবে তো?

Comments
Loading...