নির্বাচন কমিশনার লাভাসার স্ত্রীকে আয়কর নোটিস, বিরোধিতা করলেই কেন্দ্রীয় এজেন্সি ব্যবহারের অভিযোগ বিরোধীদের

লোকসভা ভোটের সময় নরেন্দ্র মোদী, অমিত শাহদের বিরুদ্ধে নির্বাচন কমিশনে বারবার নির্বাচনী বিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ করেছে বিরোধীরা। কিন্তু একের পর এক মামলায় ক্লিনচিট পেয়েছেন মোদী, শাহ। সেই সময় জানা গিয়েছিল, অভিযোগের নিষ্পত্তি করতে বসে, প্রতিবারই বাকি দুজন কমিশনারের থেকে ভিন্ন মত পোষণ করেছিলেন নির্বাচন কমিশনার অশোক লাভাসা। এবার তাঁর স্ত্রীকে নোটিস পাঠালো আয়কর দফতর। সূত্রের খবর, অশোক লাভাসার স্ত্রী নভেল সিঙ্ঘলের রোজগার নিয়ে প্রশ্ন তুলে নোটিস পাঠানো হয়েছে।

২০০৫ সালে স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া থেকে ইস্তফা দেন নভেল সিঙ্ঘল। তারপর তিনি প্রায় এক ডজন সংস্থায় ডিরেক্টরের পদ সামলাচ্ছেন। সূত্রের খবর, এই সংস্থাগুলো থেকে তাঁর আয় এবং স্বামী ভারত সরকারের সচিব পদে কর্মরত থাকার কোনও সুবিধা স্ত্রী পেয়েছেন কিনা, তা খতিয়ে দেখতে চাইছে আয়কর দফতর।

সম্প্রতি লাভাসার স্ত্রীর আয় নিয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ হয় সংবাদপত্র বিজনেস স্ট্যান্ডার্ডে। সেখানে লেখা হয়, ২০১৬ সালের ১৪ ই সেপ্টেম্বর নভেল সিঙ্ঘল একসঙ্গে ৪ টি বিদ্যুৎ সংস্থায় ডিরেক্টর হিসেবে যোগ দেন। পাশাপাশি আরও অন্তত ৬ টি বিদ্যুৎ উৎপাদনকারী সংস্থাতেও তিনি ডিরেক্টর পদে ছিলেন। প্রতিবেদনে দাবি করা হয়, বিদ্যুৎ সংস্থা ছাড়াও বলরামপুর চিনি মিল লিমিটেডেও ডিরেক্টর পদে ছিলেন নভেল সিঙ্ঘল।

নভেল সিঙ্ঘলকে আয়কর নোটিস সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জানা না গেলেও এই প্রসঙ্গ যে বিতর্কের ঝড় তুলবে তা বলাই বাহুল্য। মোদী সরকারের বিরুদ্ধে অভিযোগ, সরকারের কোনও সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করলেই, তাঁর উপর কেন্দ্রীয় এজেন্সি লেলিয়ে দেওয়ার। নির্বাচন কমিশনারের স্ত্রীকে আয়কর নোটিস পাঠানোর ঘটনা, এরই উজ্জ্বল উদাহরণ বলে দাবি বিরোধী রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বদের।

লোকসভা ভোট চলাকালীন নরেন্দ্র মোদী, আমিত শাহের বিরুদ্ধে বারবার নির্বাচনী বিধি ভঙ্গের অভিযোগ এনেছে বিরোধীরা। কিন্তু প্রতিবারই কমিশনের ক্লিনচিট পেয়ে গিয়েছেন মোদী-শাহ। সেই সময় জানা গিয়েছিল, বিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ নিষ্পত্তিতে বসে বাকি দু’জন কমিশনারের সঙ্গে সহমত পোষণ করেননি অশোক লাভাসা। প্রতিটি ক্ষেত্রেই একই ঘটনা ঘটে এবং ফয়সালা হয় ২-১ ব্যবধানে। যা নিয়ে পরবর্তীতে চলে তুমুল বিতর্ক।

এবার নির্বাচন কমিশনার লাভাসার স্ত্রীর বিরুদ্ধেই আয়কর নোটিস পাঠানোর ঘটনা ঘটল। যা বিরোধীদের অভিযোগকেই প্রাসঙ্গিকতা দিল বলে মনে করছেন রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের একাংশ। পাশাপাশি অন্য একটি অংশের মত, অভিযোগ উঠলে তদন্ত করে দেখাটাই রীতি। এক্ষেত্রেও তার অন্যথায় করা হয়নি।

Comments
Loading...