ঝঞ্ঝার গেরো কাটিয়ে বছর শেষে স্বমহিমায় ফিরছে শীত, উত্তুরে হাওয়ায় আরও নামবে পারদ, নতুন বছরে বৃষ্টির ভ্রূকুটি

২০১৯ এর শেষ লগ্নে এসে শীতের প্রভাব বাড়বে বঙ্গে। আবহাওয়া দফতর সূত্রে খবর, পশ্চিমি ঝঞ্ঝা ও উচ্চচাপ বলয়ের প্রভাব কাটতে শুরু করেছে। শুক্রবার থেকে কলকাতার সহ দক্ষিণবঙ্গের তাপমাত্রা নামবে। শনিবার থেকে শীত বাড়ছে। তা আরও নিম্নগামী হয়ে সপ্তাহান্তে জোরদার শীতের পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া দফতর। নতুন বছরে অবশ্য বৃষ্টির পূর্বাভাস দিয়েছে হাওয়া অফিস।
শুক্রবারও কলকাতায় মেঘলা আকাশের সঙ্গে হালকা বৃষ্টির পূর্বাভাস দিয়েছে হাওয়া অফিস। এদিন সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ২১ ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। শনিবার থেকে একধাক্কায় ৩ ডিগ্রি পর্যন্ত পারদ নামতে পারে বলে পূর্বাভাস। আগামী ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত মোটামুটি মেঘলা আকাশ ও ঠান্ডা ঠান্ডা আমেজেই দিন কাটবে কলকাতাবাসীর।
রাজ্যে ঠিকঠাক শীত আসার আগেই আরব সাগরে সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড় ‘পবন’ এর জন্য ডিসেম্বরের তৃতীয় সপ্তাহেও আশাতীত শীত পড়েনি। এদিকে বড়দিনের সময় পশ্চিমি ঝঞ্ঝা ও বঙ্গোপসাগরে উচ্চচাপ বলয়ের জন্য উত্তুরে হাওয়া বাধা পাচ্ছে। ফলে রাতে তেমন জাঁকিয়ে ঠান্ডাটা পড়েনি। যদিও রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় গত দু’দিন ভাল শীত অনুভূত হয়েছে। যেমন বৃহস্পতিবার বহরমপুরে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১১ ডিগ্রি সেলসিয়াস, আসানসোলে ১২.৭ ডিগ্রি। দার্জিলিঙে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ৩ ডিগ্রি এবং কালিম্পঙে ৫ ডিগ্রি। তবে এই আবহাওয়াকে গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গের চেনা শীতের চরিত্র বলতে রাজি নন আবহাওয়াবিদরা। বরং শুক্রবার থেকে থেকে ঝঞ্ঝা ও উচ্চচাপ বলয়ের প্রভাব কাটার পরেই আগামী ক’দিন শীতের আসল মেজাজ পাওয়া যাবে জানাচ্ছে আবহাওয়া দফতর।

Comments
Loading...