চিনা পণ্য বয়কটের ডাক! দেশের স্মার্ট টিভির বাজারের ২৭% দখল নিয়ে এক নম্বরে চিনা সংস্থা Xiaomi

লাদাখ সীমান্তে চিনের আগ্রাসনের মোকাবিলা করতে গিয়ে প্রাণ হারিয়েছেন একাধিক ভারতীয় সেনাকর্মী। এই পরিস্থিতিতে দেশে চলছে প্রবল চিন বিরোধী বিক্ষোভ। চিনের পণ্য বয়কটের ডাক দিয়ে কর্মসূচি নিতে শুরু করেছে বিভিন্ন সংগঠন।
কেউ কেউ দাবি তুলছেন, চিনের পণ্য সম্পূর্ণ বয়কট করে চিনকে ভারতীয় বাজার থেকে পাততাড়ি গোটাতে বাধ্য করতে হবে। ভারতের বিশাল বাজার হাতছাড়া হলে বিপদে পড়বে চিন।
এই পরিস্থিতিতে সামনে এল এক নয়া তথ্য। ভারতের বাজারে প্রবল গতিতে বাড়ছে স্মার্ট টিভির কদর এবং এই ক্রমশ বেড়ে চলা বাজারে বাকিদের কার্যত উড়িয়ে এগিয়ে চলেছে চিনা সংস্থা Xiaomi।
কাউন্টার পয়েন্ট রিসার্চের সাম্প্রতিক রিপোর্ট বলছে, ভারতে স্মার্ট টিভির বাজারে এই অর্থবর্ষের প্রথম তিন মাসে ২৭ শতাংশ দখল করে এক নম্বর স্থানে চিনা সংস্থা Xiaomi। বহু যোজন পিছনে ১৪ শতাংশ বাজার নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে এলজি। স্যামসাঙ ১০ শতাংশ বাজার নিয়ে তৃতীয় স্থানে। সোনি রয়েছে ৯ শতাংশ নিয়ে চতুর্থ স্থানে এবং ৮ শতাংশ মার্কেট শেয়ার নিয়ে পঞ্চম টিসিএল।
কিন্তু রাতারাতি সোনি, স্যামসাঙকে পিছনে ফেলে চাইনিজ Xiaomi র এগিয়ে যাওয়ার কারণ কী? সমীক্ষাকারী সংস্থা কাউন্টার পয়েন্টের গবেষক দেবাশিস জানা বলছেন, স্মার্ট ফোন প্রস্তুতকারীদের পক্ষে স্মার্ট টিভি সেগমেন্টেও ঢুকে পড়ার মূলত দ্বিমুখী সুবিধা। প্রথমত, স্মার্ট টেকনোলজি ব্যবহার করার ফলে ফোন থেকে টিভিতে যাওয়া খুব একটা সমস্যার নয়। দ্বিতীয়ত, স্মার্ট ফোন বিক্রি করে যে বাজার ইতিমধ্যেই তৈরি হয়ে গিয়েছে, স্মার্ট টিভি বাজারে এনে সেই তাকেই আরও পুষ্ট করছে চিনের ব্র্যান্ড Xiaomi। আর সবচাইতে বড় সুবিধা হল, চিনে তৈরি ফোন বা টিভির দাম। যে দামে বিভিন্ন ফিচার দেওয়া সম্ভব চিনের সংস্থার, তা আর কেউ পারে না।
উত্তর আমেরিকা ও ইউরোপের বাজার সম্পৃক্ত হয়ে পড়ার পর বিশ্বের বিখ্যাত সংস্থাগুলো এশিয়ার বাজার ধরতে উঠেপড়ে লাগে। কিন্তু এমনটা হতে পারে তা আঁচ করে আগে থেকেই চিন ও ভারতের বাজার ধরার পরিকল্পনা ছকে রেখেছিল Xiaomi। ফলে বাকিরা সেই অর্থে চিনের এই ব্র্যান্ডকে চ্যালেঞ্জের মুখেই ফেলতে পারেনি। আজ বিশ্বের স্মার্ট টিভির ৭ শতাংশ মার্কেট শেয়ার দখলে রেখেছে একা Xiaomi। কাউন্টার পয়েন্টের বিশ্লেষণ, বস্তুত ভারত ও চিনের বাজারে Xiaomi র এমন সাফল্যের পরই বিভিন্ন স্মার্ট ফোন নির্মাতা স্মার্ট টিভি তৈরিতে নামে। ফলে আগে ব্যবসা শুরুর ডিভিডেন্ড পেয়েছে চিনের Xiaomi।

Comments
Loading...