আমেরিকায় ‘ভারতীয়’ সরকার! ২৫ ভারতীয় বংশোদ্ভূত বাইডেন প্রশাসনে, চিনে নিন তাঁরা কারা

ভারতের সঙ্গে তাঁর যোগ বহু পুরনো, সে কথা আগেই জানিয়েছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন।
কলকাতার মার্টিনিয়ার স্কুলের প্রধানশিক্ষক ছিলেন আমেরিকার নয়া প্রেসিডেন্টের পূর্বপুরুষ।
উঠে এসেছে মুম্বই এবং চেন্নাইয়ে বসবাস করা বাইডেনের পূর্বপুরুষদের কথাও। তবে এবার বাইডেন প্রশাসনেও ভারত-যোগ! শুধু আমেরিকার প্রথম মহিলা ভাইস প্রেসিডেন্ট তথা প্রথম ভারতীয় বংশোদ্ভূত মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিসই নন, আরও ২৫ ভারতীয় বংশোদ্ভূত আমেরিকান জায়গা পাচ্ছেন নয়া মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন প্রশাসনের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদে। এঁদের মধ্যে ১৫ জনের হাতে আবার আমেরিকান প্রশাসনের নীতি নির্ধারণের গুরু দায়িত্ব বর্তাচ্ছে।
এঁরা কারা?
নীরা ট্যান্ডন, বিবেক মূর্তি, রোহিণী কোসগলু, আলি জাইদি, ভারত রামামূর্তি, বেদান্ত প্যাটেল, বিনয় রেড্ডি ও গৌতম রাঘবন প্রমুখের হাতে থাকছে প্রশাসনের গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব।
এছাড়া বাইডেন প্রশাসনের বিভিন্ন দায়িত্বে যে সব ভারতীয় বংশোদ্ভূতরা রয়েছেন তাঁরা হলেন, আইআইটি বম্বের প্রাক্তনী তথা গুগলের প্রাক্তন একজিকিউটিভ অফিসার অরুণ মজুমদার। এনার্জি সেক্রেটারি হিসেবে তাঁর নাম মনোনীত করছে বাইডেন প্রশাসন। ন্যাশনাল ড্রাগ পলিসি অফিসের দায়িত্ব থাকছেন রাহুল গুপ্তা। কিরণ আহুজা থাকবেন আমেরিকা প্রশাসনের অফিস অফ পার্সোনেল ম্যানেজমেন্টের দায়িত্বে। এছাড়া হোয়াইট হাউসের সহকারী প্রেস প্রেসিডেন্টের দায়িত্বে থাকবেন বেদান্ত প্যাটেল। আমেরিকার ফার্স্ট লেডি জিল বাইডেনের পলিসি ডিরেক্টরের দায়িত্ব বর্তাচ্ছে মালা আদিগার উপরে। বাইডেন প্রশাসনের বিভিন্ন ভূমিকায় থাকছেন ভারতীয় বংশোদ্ভূত ভব্যা লাল, পুনীত তলোয়ার, পাভ সিংহ, সীমা নন্দ প্রমুখ।
ভারতীয় বংশোদ্ভূত আমেরিকান নীরা ট্যান্ডন কাজ ক্লিন্টন ও ওবামার অ্যাডভাইজর হিসেবে কাজ করেছেন। এবার ৫০ বছর বয়সী নীরার ভূমিকা হতে চলেছে বাইডেন প্রশাসনের বাজেট নির্ধারণের। যদিও আমেরিকার নির্বাচনী বিশেষজ্ঞরা এখনও তাঁর নিয়োগ নিয়ে সংশয়ে রয়েছেন। এদিকে বিবেক মূর্তির জায়গা হচ্ছে বাইডেন প্রশাসনের কোভিড টাস্ক ফোর্সে। ডঃ অতুল গাওয়ান্ডে ও ডঃ সেলাইন গাউন্ডার যাঁদের আদি শিকড় এ দেশের তামিলনাড়ু, তাঁরাও থাকছেন এই কোভিড টাস্ক ফোর্সে।
জো বাইডেনের ঘোষণা মাফিক ডিরেক্টর অফ স্পিচ রাইটিংয়ের দায়িত্ব পাচ্ছেন ভারতীয় বংশোদ্ভূত বিনয় রেড্ডি, প্রেসিডেন্সিয়াল পার্সোনেল অফিসের ডিরেক্টরের দায়িত্বে বসছেন গৌতম রাঘবন। এছাড়া আমেরিকার ন্যাশনাল ইকোনমিক কাউন্সিলের ডেপুটি ডিরেক্টরের জায়গা পাচ্ছেন ভরত রামামূর্তি।

Comments
Loading...