ওড়িশায় কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর গাড়ি ওভারটেক করায় আটক কলকাতার ৬!

ওভারটেক করেছিলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর গাড়ি। এই অপরাধে আটক হলেন কলকাতার ৬ বাসিন্দা। ঘটনাস্থল ওড়িশা। জানা গিয়েছে, ওড়িশার ১৬ নম্বর জাতীয় সড়ক দিয়ে গাড়ি চালিয়ে কলকাতা ফিরছিলেন সন্তোষ সাউ। সঙ্গে স্ত্রী, দুই শিশু সন্তান এবং ভাই।

বস্তার কাছে একটি গাড়ির সাইরেনের শব্দ শুনতে পান। প্রথমে অ্যাম্বুলেন্স ভাবলেও পরে বুঝতে পারেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর গাড়ি। গাড়ির সঙ্গে ছিল পুলিশের পাইলট কার। সন্তোষের দাবি, কিছুক্ষণ পর পাইলট কার কাঁচা রাস্তায় চলে গেলে মন্ত্রীর গাড়িটিকে ওভারটেক করেন।

কিছুক্ষণ বাদে পিছন ফিরে দেখেন মন্ত্রীর পাইলটকে। প্রায় ২০ কিলোমিটার ধাওয়া করে সন্তোষদের গাড়ি আটকায় পাইলট। ওড়িশা পশ্চিমবঙ্গের সীমা জলেশ্বরের লোকনাথ টোল গেট পর্যন্ত ধাওয়া করা হয় তাঁদের গাড়ি। আটক করে সন্তোষ সহ তাঁর পরিবারকে নিয়ে আসা হয় থানায়। ৫ ঘন্টা হেফাজতে রাখার পর ভবিষ্যতে এই ধরণের ভুল না করার প্রতিশ্রুতি দিয়ে মুক্তি পান সন্তোষ।

[আরও পড়ুন- করোনার জেরে পিছিয়ে গেল “চন্দ্রযান ৩” র উৎক্ষেপণ: ইসরো]

গাড়িটি ছিল কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী প্রতাপ চন্দ্র সারঙ্গীর। রবিবার বালেশ্বরের পঞ্চলিঙ্গেশ্বর থেকে দুটি গাড়ি নিয়ে কলকাতায় ফিরছিলেন সন্তোষ সাউ ও তাঁর পরিবার। বস্তা থানার আইআইসি অশোক নায়েক জানিয়েছেন, মন্ত্রী নিজেই পাইলট কারকে তাঁদের ধরে নিয়ে আসতে বলেন বস্তা থানায়। মোটর ভেহিকেল আইন অনুযায়ী মামলা দায়ের করার পর তাঁদের পিআর-এ ছেড়ে দেওয়া হয়।

আর সন্তোষ জানিয়েছেন, মন্ত্রীর গাড়ি ওভারটেক করা নিষেধ, এ কথা জানলে কি এটা করি! ভালো শিক্ষা হল।

Comments
Loading...