হঠাৎ বিস্ফোরণে দক্ষিণ কাশ্মীরের কুলগাম জেলার লারো এলাকায় রবিবার প্রাণ হারালেন ছয় সাধারণ বাসিন্দা। জানা গেছে, এলাকায় এক দল জঙ্গি ঘাঁটি গেড়েছে, এই খবর পেয়ে রবিবার ভোররাত থেকে অভিযান শুরু করে পুলিশ এবং সেনার যৌথ বাহিনী। দুই তরফে দীর্ঘক্ষণ গুলি চলে। পুলিশের গুলিতে ৩ জঙ্গির মৃত্যু হয়েছে বলে পুলিশ সুত্রে দাবি করা হয়েছে। দুই তরফে এই সংঘর্ষে নিরাপত্তা বাহিনীর ২ সদস্যেরও মৃত্যু হয়েছে।
পুলিশ জানিয়েছে, অভিযান শেষ হওয়ার পর, এদিন বেলার দিক থেকেই ঘটনাস্থলে জমা হয়ে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন স্থানীয়রা। পুলিশের দাবি, বরাবরই অভিযান শেষে সেনা এবং পুলিশের বিরুদ্ধে এরকম বিক্ষোভ দেখান স্থানীয়রা। এদিন তাঁদের এলাকা থেকে চলে যেতে বলা হলেও সরেননি বিক্ষোভকারীরা। ফলে অপারেশনের পর সার্চ অপারেশনও বাধা পায় কিছুটা। জানা গেছে এরই মাঝে, একটি বাড়িতে আগুন লাগিয়ে দেয় বিক্ষোভকারীরা। কিছুক্ষণ পরই সেখানে তীব্র বিস্ফোরণ ঘটে। মারা যান ৬ জন সাধারণ বাসিন্দা। ঘটনায় বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন, তাঁরা হাসপাতালে ভর্তি। প্রথমে মনে করা হচ্ছিল জঙ্গি-নিরাপত্তা বাহিনীর সংঘর্ষের মাঝে পড়ে তাঁদের মৃত্যু হয়েছে। কিন্তু পরে জানা যায়, ওই বাড়িতে মজুত বিস্ফোরক ফেটেই এই মর্মান্তিক ঘটনা ঘটেছে।
সাধারণ নাগরিকদের এই মৃত্যুর প্রতিবাদে সোমবার কাশ্মীরে বনধ ডেকেছে বিচ্ছিন্নতাবাদীরা। ঘটনায় শোক প্রকাশ করেছেন জম্মু কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতি।

You may also like