২০২৩ সালের মধ্যে ভারতে প্রথম বুলেট ট্রেন চালু করার লক্ষ্যে এগোচ্ছে পীযূষ গোয়েলের রেল মন্ত্রক। আর এরই মধ্যে আরও ছয়টি নতুন  বুলেট ট্রেন করিডর তৈরির জন্য ডিটেল্ড প্রোজেক্ট রিপোর্ট অনুমোদন করল রেল মন্ত্রক। রেল বোর্ডের চেয়ারম্যান ভি কে যাদব জানান, এই রিপোর্টগুলি আগামী দেড়-দু’বছরের মধ্যে তৈরি হাতে এসে যাবে।
এই রিপোর্টের মাধ্যমে একটি বুলেট ট্রেন করিডরের কার্যক্ষমতা ও সেই রুটে কত সংখ্যক যাত্রী হতে পারে সেই তথ্যও পাওয়া যাবে। এই ডিপিআর থেকে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে পরবর্তীকালে সেই রুটে বুলেট ট্রেন চালানো যাবে কি না, তা জানা সম্ভব হবে বলে রেল সূত্রের খবর।
রেল বলছে, এই বুলেট ট্রেনের মাধ্যমে একদিকে যেমন খুবই অল্প সময়ের মধ্যে যাত্রীদের গন্তব্যে পৌঁছে দেওয়া যাবে। তেমনি আকাশপথের যাত্রাকে জোর টক্করও দেওয়া যাবে।
যে ছ’টি হাই স্পিড রেল করিডরের জন্য এই ডিপিআর অনুমোদন করা হয়েছে সেগুলো হল, দিল্লি-নয়ডা-আগ্রা-লখনউ-বারাণসি করিডর (৮৬৫ কিমি), দিল্লি-জয়পুর-উদয়পুর-আহমেদাবাদ করিডর (৮৮৬ কিমি), মুম্বই-নাসিক-নাগপুর করিডর (৭৫৩ কিমি), মুম্বই-পুণে-হায়দরাবাদ করিডর (৭১১ কিমি), চেন্নাই-বেঙ্গালুরু-মাইশোর করিডর (৪৩৫ কিমি) এবং দিল্লি-চণ্ডীগড়-লুধিয়ানা-জলন্ধর-অমৃতসর করিডর (৪৫৯ কিমি)।

ধারাবাহিকভাবে পাশে থাকার জন্য The Bengal Story র পাঠকদের ধন্যবাদ। আমরা শুরু করেছি সাবস্ক্রিপশন অফার। নিয়মিত আমাদের সমস্ত খবর এসএমএস এবং ই-মেইল এর মাধ্যমে পাওয়ার জন্য দয়া করে সাবস্ক্রাইব করুন। আমরা যে ধরনের খবর করি, তা আরও ভালোভাবে করতে আপনাদের সাহায্য আমাদের উৎসাহিত করবে।

Login Support us

You may also like

India Coronavirus Death Toll