কিট সমস্যায় দু’দিন র‍্যাপিড টেস্ট বন্ধ দেশে! বাংলার মানুষের জীবন নিয়ে খেলছেন, আইসিএমআরকে নিশানা অভিষেকের

শুরুতেই ধাক্কা, সোমবার থেকে রাজ্যের বিভিন্ন হটস্পটে র‍্যাপিড টেস্ট শুরু করেছিল রাজ্য সরকার। মঙ্গলবার এই পরীক্ষায় কলকাতা থেকে দু’জন করোনা আক্রান্তের খোঁজ মেলে। কিন্তু এদিনই ধাক্কা খেল সেই পরীক্ষা। ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অব মেডিক্যাল রিসার্চ (ICMR)-এর তরফে রাজ্যগুলিকে জানানো হল, দু’দিনের জন্য র‍্যাপিড অ্যান্টিবডি টেস্ট বন্ধ রাখতে। সূত্রের খবর, র‍্যাপিড অ্যান্টিবডি টেস্ট কিটের বেশ কিছু সমস্যার কথা উঠে আসাতেই এই সিদ্ধান্ত। ফলে সোমবার থেকে রাজ্যে দ্রুত গতিতে যে র‍্যাপিড অ্যান্টিবডি টেস্ট শুরু হয়েছিল, তা থমকে যাবে।
প্রসঙ্গত, র‍্যাপিড টেস্ট কোভিড-১৯ নির্ণায়ক কোনও টেস্ট নয়। কোনও ভাইরাস শরীরে আক্রমণ করলে, মানুষের দেহে সেই ভাইরাসের সঙ্গে লড়াই করার জন্য নিজে থেকেই তৈরি হয় প্রতিরোধ ক্ষমতা। চিকিৎসা বিজ্ঞানের পরিভাষায় একে বলে অ্যান্টিবডি। যে কোনও রেড জোনের বাসিন্দার র‍্যাপিড  টেস্ট করলে জানা যাবে, সেই ব্যক্তির শরীরে অ্যান্টিবডি তৈরি হয়েছে কি না। বিশেষ অ্যান্টিবডি পাওয়া গেলে ধরে নেওয়া হবে সদ্য ওই ব্যাক্তির শরীরে সংক্রমণ হয়েছে। তাই চিকিৎসকরা এই পদ্ধতিকে সম্ভাব্য কোভিড আক্রান্ত খোঁজার একটি স্ক্রিনিং বলেই দাবি করেছেন।
কিন্তু র‍্যাপিড অ্যান্টিবডি কিট হাতে পাওয়ার পরই রাজস্থান সহ একাধিক রাজ্য অভিযোগ তোলে কিটে গণ্ডগোল রয়েছে বলে। রাজ্যগুলির কাছ থেকে এমন গুরুতর অভিযোগ পাওয়ার পরই তা খতিয়ে দেখা শুরু করে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক তথা আইসিএমআর। কিটে যে সমস্যা রয়েছে তা এদিন স্বীকার করে নিয়ে পরীক্ষা বন্ধ করার নির্দেশ দিল আইসিএমআর।
এদিকে পশ্চিমবঙ্গে পাঠানো ত্রুটিপূর্ণ কোভিড-১৯ (COVID-19) টেস্টিং কিটের কথা স্বীকার করে ICMR জানায়, এই কিটগুলি পরিবর্তন করে দেওয়া হবে। এই নিয়ে বাংলাকে বঞ্চনার অভিযোগ তুলেছেন তৃণমূল সাংসদ অভিষেক ব্যানার্জি। মঙ্গলবার ডায়মন্ড হারবারের সাংসদ সংবাদ সংস্থা পিটিআই-র একটি ট্যুইট রিট্যুইট করে লেখেন, প্রথমে আইসিএমআরের মাধ্যমে ত্রুটিপূর্ণ কিট রাজ্যের চিকিৎসা ব্যবস্থায় বাধা দেওয়া হচ্ছে, তারপর রাজ্য সরকারকে অন্ধকারে রেখে প্রতিনিধি দল পাঠিয়ে রাজ্যের পারফরমেন্স খতিয়ে দেখতে চাইছেন আপনারা। ট্যুইটে আরও লেখেন, করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ের নামে বাঙালিদের জীবন নিয়ে খেলছেন। আর আপনাদের নেতারা ভুয়ো খবর ছড়াচ্ছেন। অভিষেক ‘আপনারা’ বলতে কাকে উদ্দেশ্য করেছেন ট্যুইটে তা পরিষ্কার না করলেও নিশানা যে মোদী সরকারের দিকে, তা বোঝা গিয়েছে বলে মত রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের।

Comments
Loading...