জেএনইউ: উপাচার্যের বিরুদ্ধে আঙুল তুললেন জখম ছাত্রনেত্রী ঐশী, বিশ্ববিদ্যালয় রাজনীতির আখড়া, পাল্টা কেন্দ্রীয় মন্ত্রী

জেএনইউ-কাণ্ডে এবিভিপির যোগ স্পষ্ট হওয়ার ইঙ্গিত একাধিক ভিডিও ফুটেজ ও ছবিতে। এদিকে রবিবারের হামলায় গুরুতর জখম জেএনইউ ছাত্র সংসদের প্রেসিডেন্ট ঐশী ঘোষের অভিযোগ, হামলার বহু আগেই পুলিশকে জানানো হয়েছিল, বহিরাগতরা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে জড়ো হচ্ছে। পড়ুয়ারা আতঙ্কে রয়েছেন। কিন্তু পুলিশ কোনও পদক্ষেপই করেনি। সেই সঙ্গে হামলার ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য এম জগদেশ কুমারকেই কাঠগড়ায় দাঁড় করান ঐশী।
সোমবার কেন্দ্রীয় মানব সম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রী রমেশ পোখরিয়াল ঘুরিয়ে জেএনইউ-র পড়ুয়াদেরই সমালোচনা করেছেন। সংবাদ সংস্থা পিটিআই-কে তিনি জানান, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলিকে এভাবে ‘রাজনৈতিক আড্ডার জায়গা’ করা যাবে না। তবে যে বা যারা রবিবারের হামলায় দায়ী, তারা কড়া শাস্তি পাবে।
ইংরেজি সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি সূত্রে জেএনইউ হামলার বেশ কয়েকটি ছবি উঠে এসেছে। একটি ছবিতে দেখা যাচ্ছে, এবিভিপি-র জেএনইউ ইউনিটের এক্সিকিউটিভ কমিটির সদস্য বিকাশ প্যাটেল ডজন খানেক সঙ্গীকে নিয়ে লাঠি হাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের দিকে যাচ্ছেন। এই বিকাশ প্যাটেলের এমন আরও একটি ছবি দিল্লি পুলিশ পেয়েছে বলে এনডিটিভি সূত্রে খবর। বিকাশের পাশে শিউপুজন মণ্ডল নামে এবিভিপি-র আরও এক সদস্যকে চিহ্নিত করা গিয়েছে। হলুদ সোয়েটার, নীল জিনস পরা ওই যুবককে লাঠি হাতে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা গিয়েছে। তাদের ধীরে ধীরে বিশ্ববিদ্যালয়ের দিকে যাওয়ার একাধিক ছবি পেয়েছে সংবাদমাধ্যম। এদেরই রবিবার সন্ধ্যের হামলার একটি ভিডিয়োতেও দেখা যায়। পাশাপাশি, জেএনইউ-র এবিভিপি সদস্যদের হোয়াটসঅ্যাপের যে স্ক্রিনশট সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছে সেখানেও ওই বিকাশ প্যাটেলের হোয়াটসঅ্যাপ নম্বর দেখা গিয়েছে। এছাড়া জেএনইউ-র সংস্কৃত বিভাগের ছাত্র যোগেন্দ্র ভরদ্বাজ ও পিএইচডি পড়ুয়া সন্দীপ সিংহকেও চিহ্নিত করা গিয়েছে। ভরদ্বাজ ট্যুইটার হ্যান্ডেলে নিজের পরিচয় দিয়েছেন এবিভিপি কর্মী হিসেবে। যদিও সেই অ্যাকাউন্ট পরে ডিলিট করে দেওয়া হয়। এদিকে সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে ঐশী ঘোষ জানান, রবিবার বেলা আড়াইটে নাগাদ বহু বহিরাগত বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে ঢুকছিল। সে সময়ে পুলিশকে বিষয়টি জানালেও কোনও পদক্ষেপ করেনি তারা। তাঁকে লোহার রড দিয়ে আক্রমণ করা হয় বলে অভিযোগ করেন জেএনইউ ছাত্র সংসদের প্রেসিডেন্ট।
সোমবার দুপুরে জেএনইউ কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বৈঠক করেন কেন্দ্রীয় মানব সম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রকের সচিব অমিত খাড়ে। বৈঠকে আলোচনার বিষয়ে বিশদে কোনও জানা না গেলেও কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রমেশ পোখরিয়াল জানিয়েছেন, হামলাকারীদের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Comments
Loading...