ভার্চুয়াল প্রচারে পিকেকে টক্কর দিতে বাংলায় বিজেপির IT সেল চিফ অমিত মালব্য, ফেক নিউজের জনক! কটাক্ষ তৃণমূলের

বিজেপির সর্বশেষ সাংগাঠনিক রদবদলে বাংলায় কৈলাস বিজয়বর্গীয়র ডেপুটি হিসেবে দায়িত্ব পেয়েছেন এতদিন দলের আইটি সেল দেখভাল করা অমিত মালব্য। অর্থাৎ বাংলায় বিজেপির ভার্চুয়াল প্রচারকে তুঙ্গে নিয়ে যেতে গেরুয়া ব্রিগেড এবার দলের আইটি বিশেষজ্ঞকে সটান এনে ফেলছে কলকাতায়। 

বিজেপির তরুণ এই নেতা সম্পর্কে বলা হয়, তিনি সোশ্যাল মিডিয়ার অলিগলি চেনেন হাতের তালুর মতো। আবার একটি অংশ অমিত মালব্যকে ভারতে ফেক নিউজের জনক বলেও উল্লেখ করেন। এদিকে বাংলায় সোশ্যাল মিডিয়ায় তৃণমূল-বিজেপি টক্কর ক্রমেই চরমে উঠছে। প্রশান্ত কিশোরের টিমের নেতৃত্বে তৃণমূল নিজেকে সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রতিষ্ঠিত করে ফেলেছে। এই পরিস্থিতিতে দলের আইটি সেলের প্রধানকে বাংলায় পাঠিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ার লড়াইকে এক অন্য মাত্রা দিল বিজেপি। 

পর্যবেক্ষকরা বলছেন, বাংলা দখলের একটি অন্যতম অংশ হয়ে উঠেছে সোশ্যাল মিডিয়া। পিকের টিমের উপস্থিতিতে তৃণমূল খানিকটা হলেও এগিয়ে। এই পরিস্থিতিতে একইসঙ্গে বিতর্কিত ও জনপ্রিয় বিজেপি আইটি সেলের প্রধান অমিত মালব্যকে বাংলায় পাঠিয়ে প্রচারের ধার বৃদ্ধি করতে চায় গেরুয়া শিবির।

বাংলার দায়িত্ব পাওয়ার খবর নিজেই টুইট করে জানিয়েছেন তিনি। আর সেই টুইটের টাইম লাইন ভরে উঠেছে নেটিজেনদের প্রতিক্রিয়ায়। 

কেউ বাংলায় কাজের দায়িত্ব পাওয়ায় অমিত মালব্যকে অভিনন্দন জানিয়েছেন, আবার কেউ আগেভাগেই জানিয়ে দিয়েছেন বাংলায় অমিত মালব্যর কর্মসূচি!

আমির ভাই নামের হ্যান্ডল থেকে একটি খবরের প্রতিবেদন পোস্ট করে লেখা হয়েছে, আগেরবার বিষ ছড়াতে ৫৫ হাজার ফেক হোইয়াটসঅ্যাপ বানানো হয়েছিল, এবার নিশ্চয়ই আগের রেকর্ড ভাঙ্গা হবে! 

নিশান্ত নামের হ্যান্ডল লিখেছে, আপনি যোগ্য তাই দায়িত্ব পেয়েছেন। আমরা জানি বাংলায় পদ্ম ফুটবে। মোদীজির বিকাশ রাজ শুরু হবেই। তার ঠিক আগের কমেন্ট মধুমিতা নামের অ্যাকাউন্ট থেকে। তিনি আবার অমিত মালব্যের যোগ্যতার অন্য দিক খুঁজে পেয়েছেন। লিখেছেন, বাংলা জিততে বিজেপির দরকার আরও মেরুকরণ। এই কাজে অমিত মালব্যর চেয়ে যোগ্য লোক কে আছে? 

এর আগে তৃণমূল সাংসদ নুসরত জাহানের সঙ্গে ভার্চুয়াল লড়াইয়ে জড়ান অমিত মালব্য। এবার তাঁকে সামলাতে হবে সম্মিলিত তৃণমূলের আক্রমণ। বিধানসভা ভোট পর্যন্ত সেই লড়াই এবার আরও টানটান। 

Comments
Loading...