দেনা মেটাতে সান্তাক্রুজের সদর দফতর বিক্রির পরিকল্পনা অনিল আম্বানীর, মোট ঋণ ছাড়ালো ৭৫ হাজার কোটি

মাথায় বিপুল দেনা। এবার ধার শোধ করতে হেড অফিস লিজ বা বিক্রি করে দেওয়ার পরিকল্পনা অনিল আম্বানীর রিলায়েন্স কমিউনিকেশনসের। মুম্বইয়ের সান্তাত্রুজের সদর দফতর বিক্রি কিংবা লিজে দেওয়ার পরিকল্পনা করা হয়েছে। সূত্রের খবর, সান্তাক্রুজের সদর দফতরের মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ৩ হাজার কোটি টাকা।

মুম্বইয়ের ওয়েস্টার্ন এক্সপ্রেস হাইওয়ের ধারে ৪ একর জায়গা জুড়ে সম্প্রতি তৈরি হয়েছিল অনিল আম্বানীর একটি সংস্থার বিলাসবহুল সদর দফতর। সেই ৭ লক্ষ স্কোয়ার ফুটের সদর দফতরই এবার দীর্ঘমেয়াদী লিজ কিংবা বিক্রি করতে চলেছে রিলায়েন্স কমিউনিকেশন। শুধু সান্তাক্রুজের পেল্লায় সদর দফতরই নয় সংস্থার বান্দ্রা-কুরলা কমপ্লেক্সে ৩ একর জমিও বিক্রি করার পরিকল্পনা চলছে। সূত্রের খবর, জাপানি বহুজাতিক সুমিটোমো ইতিমধ্যেই আগ্রহ প্রকাশ করে ২২৩৮ কোটি টাকার দর হেঁকেছে।

সান্তাক্রুজের অফিস হাতছাড়া হলে অনিল আম্বানীর অফিস ফিরে আসবে দক্ষিণ মুম্বইয়ের বালার্ড এস্টেটে রিলায়েন্স সেন্টারে। সেই অফিসটি বর্তমানে ফাঁকা। ২০০৫ সালে রিলায়েন্স সাম্রাজ্য ভাগাভাগির সময়, অনিল আম্বানী পেয়েছিলেন বালার্ড এস্টেটের জায়গাটি।

অনিল ধীরুভাই আম্বানী গ্রুপের পক্ষ থেকে সদর দফতর বিক্রি বা দীর্ঘমেয়াদী লিজের বিষয়টি স্বীকার করা হলেও অতিরিক্ত কোনও তথ্য দেওয়া হয়নি।

ঋণভারে জর্জরিত অনিল আম্বানী ধার শোধ করতে সংস্থার মূল চরিত্রে বেশ কিছু বদল করছেন। সেই বদলেরই একটি ধাপ অফিস বিল্ডিং বিক্রি কিংবা দীর্ঘমেয়াদি লিজে দিয়ে ঋণ শোধের পরিস্থিতি অনুকূল করা। বিশেষজ্ঞদের একাংশের অনুমান, সান্তাক্রুজের অফিস বিক্রি কিংবা দীর্ঘমেয়াদি লিজে দিলে, সেই অর্থ দিয়ে রিলায়েন্স ইনফ্রা ঋণমুক্ত হতে পারবে। বর্তমানে বাজারে ৫ হাজার কোটি দেনা রয়েছে রিলায়েন্স ইনফ্রার। অন্যদিকে সংস্থার মোট দেনার পরিমাণ ছাড়িয়েছে ৭৫ হাজার কোটি টাকা।

Comments are closed.