দুরন্ত কামব্যাক, ওড়িশাকে ৪-০ গোলে হারিয়ে সন্তোষ ট্রফির মূল পর্বে বাংলা

কার্যত অসম্ভবকে সম্ভব করলেন বাংলার ফুটবলাররা। সন্তোষ ট্রফির যোগ্যতা অর্জন পর্বে প্রথম ম্যাচে বিহারের কাছে হেরে, মূল পর্বে যাওয়ার আশা প্রায় শেষ হয়ে গিয়েছিল বাংলার। কারণ, অন্য ম্যাচে ওড়িশা ৬-১ গোলে হারিয়েছিল বিহারকে। তাই অঙ্কের বিচারে বৃহস্পতিবার শুধু বাংলাকে জিতলেই হতো না, জিততে হতো চার গোলের ব্যবধানে। প্রথম ম্যাচে হারের পর, এই আশা আর করছিলেন না বাংলার ফুটবলপ্রেমীরা। কিন্তু মাঠে দেখা গেল অন্য ছবি। ওড়িশাকে ৪-০ গোলে হারিয়ে বাংলা চলে গেল সন্তোষ ট্রফির মূলপর্বে। বাংলার হয়ে দুটি গোল করেন অর্জুন টুডু। একটি করে গোল করেন সুরজিৎ শীল এবং মহম্মদ ফরিদ।
বিহারের মতো দলের কাছে হারের পর সমালোচনার ঝড় উঠেছিল বাংলা দলকে নিয়ে। হাজারো প্রশ্ন উঠেছিল দলের কোচ রঞ্জন ভট্টাচার্যকে নিয়ে। তবে দ্বিতীয় ম্যাচে সব সমালোচনার জবাব দিলেন বাংলা ফুটবলাররা। মাত্র ৭ মিনিটের মাথায় বাংলাকে এগিয়ে দেন অর্জুন টুডু। প্রথমার্ধে বেশ কিছু সহজ সুযোগ পায় দুই দলই। তবে স্কোর লাইন আর পাল্টায়নি। দ্বিতীয়ার্ধের ৫৪ মিনিটে পেনাল্টি পায় বাংলা। গোল করেন সুরজিৎ শীল। মাত্র দু’মিনিটের মাথায় ৩-০ করেন মহম্মদ ফরিদ। ৬৩ মিনিটে সেই কাঙ্খিত চতুর্থ গোল। আবার গোল করেন সেই অর্জুন টুডু। জয়ের পরে উচ্ছ্বাসে ফেটে পড়েন বাংলা ফুটবলাররা। ড্রেসিংরুমে চলে সেলিব্রেশন। ২৫ হাজার টাকা পুরস্কারের কথা ঘোষণা করেন আইএফএ সচিব জয়দীপ মুখার্জি।

Comments
Loading...