জিতেন্দ্রকে নিয়ে বাবুলের সঙ্গে কথা বিজয়বর্গীয়র, হোটেলেই হাজির পাণ্ডবেশ্বরের বিধায়ক! তীব্র জল্পনা

জিতেন্দ্র তিওয়ারি ইস্যুতে মুখ খুলে শোকজের মুখে পড়েছেন বঙ্গ বিজেপির দুই নেতা নেত্রী সায়ন্তন বসু ও অগ্নিমিত্রা পাল। এবার জিতেন্দ্র তিওয়ারিকে নিয়ে সর্বপ্রথম আপত্তি তোলা সাংসদ বাবুল সুপ্রিয়র সঙ্গে আলোচনায় বসল বিজেপি নেতৃত্ব। সোমবার রাতে শহরের একটি অভিজাত হোটেলে বাবুল সুপ্রিয়র সঙ্গে বৈঠকে বসেন কৈলাস বিজয়বর্গীয়। ছিলেন অরবিন্দ মেনন। 

এদিকে সোমবার যখন বৈঠক চলছে তখন ওই হোটেলেই দেখা যায় জিতেন্দ্র তিওয়ারিকে। সূত্রের দাবি, স্ত্রী ও মেয়েকে নিয়ে ওই হোটেলে এসেছিলেন জিতেন্দ্র। সেই সময় বিজেপির সাংগঠনিক বৈঠকে যোগ দিতে হোটেলেই হাজির দিলীপ ঘোষ, মুকুল রায়রা। 

তাহলে কি জিতেন্দ্র তিওয়ারির বিজেপিতে যোগদানের পথ প্রশস্থ হল? 

বিজেপির একটি সূত্রের দাবি, জিতেন্দ্র তিওয়ারিকে দলে নিতে কেন আপত্তি করছেন বাবুল সুপ্রিয় তা জানার চেষ্টা করেন বিজয়বর্গীয়। দুজনের মধ্যে খোলাখুলি কথা হয়েছে বলে জানা যাচ্ছে। তবে সেই সময় একই হোটেলে সপরিবার জিতেন্দ্র তিওয়ারি কী করছিলেন তা জানা যায়নি। 

বেশ কিছুদিন ধরেই জিতেন্দ্রকে নিয়ে তোলপাড় চলছে রাজ্য রাজনীতিতে। কদিন আগে নতুন করে তৃণমূলে ফিরে জিতেন্দ্র ফেসবুকে পোস্ট করেন, রাজনীতিতে দাঁড়ি বলে কিছু হয় না। তাঁর কদিনের মধ্যেই তিনি আবার ফেসবুকে লেখেন, দিদির সঙ্গে ছিলাম, আছি, থাকব। তারপর সোমবার রাতে ফাইভ স্টার হোটেলে বিজেপির তাবড় নেতাদের পাশাপাশি জিতেন্দ্রর উপস্থিতি এবং সেই হোটেলেই বাবুল সুপ্রিয়ের সঙ্গে কৈলাস বিজয়বর্গীয়র বৈঠক নতুন করে জল্পনার জন্ম দিয়েছে। 

যদিও গভীর রাতে পাঁচতারা হোটেল থেকে বেরনোর পথে সাংবাদিকদের জিতেন্দ্র জানান, ক’দিন বিস্তর খাটা খাটনি গিয়েছে তাই স্ত্রী, মেয়েকে নিয়ে খেতে এসেছিলেন। ওই হোটেলেই যে বিজেপির বৈঠক চলছে তা তিনি জানতেন না বলেও দাবি করেন জিতেন্দ্র। সাংবাদিকদের জিতেন্দ্র তিওয়ারি বলেন, পশ্চিম বর্ধমানে তৃণমূলকে ৯ টি আসন জেতানোই তাঁর একমাত্র লক্ষ্য।

Comments
Loading...