ক্রমেই বড় হচ্ছে জমায়েত, শনিবার দেশজুড়ে ‘চাক্কা জ্যাম’ কৃষকদের

শনিবার দেশজুড়ে ৩ ঘণ্টার ‘চাক্কা জ্যাম’কর্মসূচি পালন

আরও বড় হচ্ছে কৃষক আন্দোলন। এবার “চাক্কা জ্যাম”-এর ডাক দিল আন্দোলনরত কৃষকরা। দেশ জুড়ে দুমাসের বেশি সময় ধরে চলছে কৃষক আন্দোলন। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বাজেটের ভূয়সী প্রশংসা করে জানিয়েছিলেন, “এই বাজেট গ্রাম এবং কৃষকদের সুবিধার কথা মাথায় রেখে করা হয়েছে।

কৃষি ক্ষেত্রের উন্নয়ন আর কৃষকদের আয় বাড়ানোর পরিকল্পনা রয়েছে এই বাজেটে। এরপরেই দিল্লি সীমান্ত থেকে আরও বড় আন্দোলনের ডাক দেওয়া হল। সংযুক্ত কৃষক মোর্চার তরফে ঘোষণা করে বলা হয়েছে, আগামী ৬ ফেব্রুয়ারি, শনিবার দেশজুড়ে ৩ ঘণ্টার ‘চাক্কা জ্যাম’কর্মসূচি পালন করা হবে। এই কর্মসূচীতে দেশের সর্বত্র জাতীয় সড়ক এবং হাইওয়েগুলিতে যানবাহন চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হবে বলে জানানো হয় আন্দোলনরত কৃষক সংগঠনগুলির তরফে।

[আরও পড়ুন- ত্রিপুরাকে দেখে বাংলা বুঝুক বিজেপির বিপদ, ফের বললেন মানিক সরকার]

আলোচনার মাধ্যমে সমস্যার সমাধান হবে বলে কৃষকদের উদ্দেশ্যে একাধিক বার বার্তা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। অন্যদিকে কৃষক নেতাদের অভিযোগ, আন্দোলন প্রতিহত করতে ইন্টারনেট বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। বিচ্ছিন্ন করে দেওয়া হয়েছে জল, বিদ্যুতের সংযোগ। এরইমধ্যে গাজিপুর সীমান্তে আন্দোলনকে স্তব্ধ করতে রাস্তায় পেরেক পুঁতে দেওয়ার অভিযোগ উঠল দিল্লি পুলিশের বিরুদ্ধে ৷ শুধু পেরেক পুঁতে দেওয়াই নয়, কৃষকদের রুখতে তৈরি করা হয়েছে কংক্রিটের ব্যারিকেড।

অন্যদিকে টিকরি সীমান্তেও আন্দোলন থামাতে লোহার ব্যারিকেড রাস্তার উপরে বসিয়ে কাঁটা তার দিয়ে জুড়ে দেওয়া হয়৷ তৈরি রাখা হয়েছে জল কামান৷ এই অবস্থায় কেন্দ্রের কৃষি আইন পুরোপুরি বাতিল করার দাবিতে অনড় কৃষকরা। সোমবার কেন্দ্রীয় বাজেট পেশের দিনই সংসদ ভবন অভিযানের কথা ছিল কৃষকদের। পরে সেই কর্মসূচি বাতিল হয়ে যায়। এরপরেই নয়া কর্মসূচি হিসেবে আগামী শনিবার বেলা ১২টা থেকে ৩ ঘণ্টার ‘চাক্কা জ্যাম’-এর ঘোষণা করেন কৃষক নেতারা।

Comments
Loading...