লাদাখ সীমান্তে আরও ১০ হাজার সেনা মোতায়েন চিনের, প্রস্তুত ভারতীয় সেনাও

প্যাংগং সো এলাকায় আরও সেনা মোতায়েন করল চিন। সম্প্রতি ভারতীয় সেনার এক রিপোর্ট থেকে জানা যাচ্ছে, দক্ষিণ প্যাংগংয়ে নতুন করে ১০ হাজার সেনা মোতায়েন করেছে চিন। সে জায়গায় আগেই ৬ হাজার সেনা মজুত ছিল। গত ২৯-৩০ অগাস্ট থেকে দু’দেশের সেনার মধ্যে উত্তেজনা তৈরি হওয়া প্যাংগং সো অংশে চিন আরও ১০ হাজার সেনা পাঠিয়েছে। যার ফলে লাদাখ সীমান্ত বরাবর (এলএসি) চিনা সেনার সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৫২ হাজার!

অগাস্ট মাসের শেষ দিক থেকে নতুন করে উত্তেজনার পারদ চড়ছিল লাদাখের প্যাংগং সো এলাকায়। সেখানে চিনা অনুপ্রবেশের ধারাবাহিক চেষ্টা চলছিল। যদিও ভারতীয় সেনা সেই কৌশল সফল হতে দেয়নি। বরং, পাল্টা প্যাংগং সংলগ্ন বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ চূড়ায় নজরদারি শুরু করে ভারতীয় সেনা। আর এরপর থেকেই তা নিয়ে আপত্তি জানাতে উঠে পড়ে লেগেছে চিন।

জানা গিয়েছে, অগাস্টে লাদাখ সীমান্তে চিনের পিএলএর ৩৫ টি ব্যাটেলিয়ন মোতায়েন করা হয়েছিল। তা সেপ্টেম্বরে এসে দাঁড়িয়েছে পঞ্চাশে। প্রতিটি ব্যাটেলিয়নে ১,০০০ থেকে ১,২০০ করে সেনা থাকে। গত ৭ সেপ্টেম্বর ভয়ঙ্করভাবে ভারতীয় সেনার একটি দলের জায়গা দখল করতে উদ্যত হয়।

প্যাংগংয়ের এই চূড়াগুলি ভারতীয় সেনার অধীনে হওয়ার কারণে চিনা গতিবিধি স্পষ্ট ধরা পড়ছে। তাই অনুপ্রবেশের চেষ্টা বারবার বিফল করতে সক্ষম হয়েছে ভারত। কিন্তু পরিস্থিতি এতটাই খারাপ ছিল যে, ৪৫ বছর পর লাদাখে সীমান্ত বরাবর গুলি চালায় দুই দেশের সেনা। এদিকে সেনার চিন্তা বাড়াচ্ছে লাদাখের খুব কাছেই হোতান বিমানঘাঁটি। সেখানে জে-২০ বিমান রেখেছে চিন। এই বিমানঘাঁটি ভারত-চিনের লাইন অফ অ্যাকচুয়াল কন্ট্রোলের সব থেকে কাছে অবস্থিত। পিএলএ-র ওয়েস্টার্ন থিয়েটার কমান্ডের তরফে জানানো হয়েছে, ওই বিমানঘাঁটিতে আগেই জে-১০ ও জে-১১ যুদ্ধবিমান মোতায়েন ছিল। তাছাড়া সেখানে জে-৮ ও জে ১৬ ও মোতায়েন রয়েছে।

Comments
Loading...