উহানে মৃতের সংখ্যায় রাতারাতি ৫০% বৃদ্ধি, নয়া পরিসংখ্যানে দাবি চিনের, বাড়ল আক্রান্তের সংখ্যাও

চিনের উহান থেকে শুরু হয়ে ক্রমশ গোটা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়েছে মারণ নভেল করোনাভাইরাস। কিন্তু প্রথম থেকেই চিনের বিরুদ্ধে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা নিয়ে তথ্য গোপনের অভিযোগ তুলে এসেছে আমেরিকা সহ বিশ্বের অন্যান্য দেশ।

এবার সেই অভিযোগই নতুন করে অক্সিজেন পেল। উহানে করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা একলাফে ৫০% বাড়িয়ে দিল চিন।

শুক্রবার চিন জানায়, উহানে সরকারিভাবে করোনায় মৃতের সংখ্যা ৩,৮৬৯। এর আগে চিনের ঘোষিত মৃত্যু ছিল ১,২৯০। পাশাপাশি করোনায় আক্রান্তের সংখ্যাও ৩২৫ টি বৃদ্ধি পেয়ে দাঁড়িয়েছে ৫০,৩৩৩।

চিনে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা নিয়ে প্রথম থেকেই প্রশ্ন তুলছিল আমেরিকা সহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশ। চিনের বিরুদ্ধে অভিযোগ যে তাঁরা করোনায় আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা নিয়ে কারচুপি করছে। ইতিমধ্যে সারা বিশ্বে এই করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ২০ লক্ষেরও বেশি মানুষ। প্রাণ হারিয়েছেন ১,৫৪,০০০ মানুষ। প্রতি মুহূর্তে যে সংখ্যা বদলে যাচ্ছে। সব থেকে বেশি প্রভাব পড়েছে ইতালি ও আমেরিকায়। এই ভাইরাসের প্রকোপে কার্যত গৃহবন্দি হয়ে রয়েছে গোটা বিশ্ব। ভেঙে পড়েছে অর্থনীতি।

উহানের স্থানীয় প্রশাসনের তরফ থেকে জানানো হয়েছে বিস্তারিত অনুসন্ধান ও মূল্যায়ণের পর তাঁরা এই সংখ্যায় পেয়েছে। যে সমস্ত ব্যক্তির বাড়িতে মৃত্যু হয়েছে তাদের প্রথম পরিসংখ্যানে অন্তর্ভুক্ত করা যায়নি। পরিস্থিতি একটু স্বাভাবিক হতে শুরু করতেই চিন মৃত ও আক্রান্তের সঠিক সংখ্যা খতিয়ে দেখতে শুরু করে। তাতেই ধরা পড়ে অতিরিক্ত মৃত এবং আক্রান্তরা। এমনটাই জানিয়েছে উহান প্রশাসন।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে, এই ধরনের পুনর্মূল্যায়ণ স্বাভাবিক। যদিও নতুন তথ্যের পর সন্দেহ আরও দানা বাঁধছে বলে মত বিশেষজ্ঞদের একাংশের।

শুক্রবারের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, চিনে সরকারিভাবে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৮২,০০০ ও মৃতের সংখ্যা ৪,৫০০। যার মধ্যে উহান থেকে পাওয়া নতুন সংখ্যাও রয়েছে।

যদিও কমিউনিস্ট চিনের দাবি, এই মহামারির শুরু থেকেই তাঁরা আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা খোলাখুলিভাবে জানিয়ে এসেছে। তাই সংখ্যা নিয়ে কারচুপির প্রশ্ন নেই।

Comments
Loading...