কলকাতা লিগে সর্বোচ্চ গোলদাতা হয়ে ‘খেপুড়ে’ ক্রোমার চোখ আই লিগে

খেপুড়ে। আনসুমানা ক্রোমার নামের সঙ্গে এই শব্দটা জুড়ে দেওয়া হয়েছে বহুদিন। দুই বড় ক্লাবে খেলা হয়ে গেছে তাঁর। কিন্তু কোথাও নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে পারেননি। বাতিলের খাতায় ফেলা হয়েছিল তাঁকে। গতবার কলকাতা লিগে পিয়ারলেসের জার্সিতে সর্বোচ্চ গোলদাতা হয়েছিলেন। বারবার তাঁকে প্রমাণ করার চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দেওয়া হয়েছে। আর সেই চ্যালেঞ্জ বারবার গ্রহণ করেছেন তিনি।

কলকাতার মেয়ে পূজার সঙ্গে প্রেম চলছিল দীর্ঘদিন ধরে। কয়েক মাস আগে বিয়ে করেছেন। চুটিয়ে সংসার করছেন। আর সেই পুজাই এখন ক্রোমার ইনস্পিরেশন। এবারের কলকাতা লিগেও বিধ্বংসী ফর্মে ক্রোমা। ইস্টবেঙ্গল-মোহনবাগানের বিরুদ্ধে গোল করে হারিয়েছেন দুই প্রধানকে। অঙ্কের বিচারে এখনও চ্যাম্পিয়ন হয়নি পিয়ারলেস। তবে নিজেদের শেষ ম্যাচে ইস্টবেঙ্গল যদি ৭ গোলে জিততে না পারে, তাহলেই চ্যাম্পিয়ন পিয়ারলেস। আসলে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পেছনে সবচেয়ে বড় অবদান থাকবে একজনেরই। ক্রোমা। ১৩ গোল করে একার কাঁধে এগিয়ে নিয়ে গেছেন পিয়ারলেসকে।

ক্রোমা গর্বের সঙ্গে বলেন তিনি পাড়ায় পাড়ায় খেপ খেলেন। এবং খেলেন বাড়তি কিছু রোজগারের আশায়। ছোট ক্লাবে খেলে ক’টাকাই বা পান। সংসার চালানোর দায়ে ঝুঁকি নিয়েও খেপের মাঠে যান। তবে তা, নিজের ক্লাবের প্রতি দায়বদ্ধতা রেখেই। তাই মাঝরাত অবধি খেপ খেলেও, পরেরদিন ইস্টবেঙ্গল ম্যাচ নামেন এবং সর্বোপরি ইস্টবেঙ্গলকে হারাতেও পারেন ময়দানের ‘মেসি’।

দুরন্ত পারফরম্যান্সের পর আপাতত আই লিগের কোন ক্লাব নেই ক্রোমার হাতে। বেশ কয়েকটি ক্লাব তার সঙ্গে কথা বলছে ঠিকই, তবে ফেডারেশনের নিয়ম অনুযায়ী জানুয়ারি উইন্ডোর আগে সই করতে পারবেন না ক্রোমা। তাই আপাতত তিন মাস তার হাতে কোনও ক্লাব নেই। তবে তাই নিয়ে ভাবতে নারাজ এই ভিনদেশি স্ট্রাইকার। তিনি বলছেন, ‘ভালো সময়, খারাপ সময় জীবনেরই অঙ্গ। আমি যে সেরা, সেটা বারবার প্রমাণ করে যাবো।’

Comments
Loading...