২০২০ সালের দিল্লি বিধানসভা ভোটে কোটিপতি প্রার্থীর ছয়লাপ। এবার বিভিন্ন দলের মোট ১৬৪ জন প্রার্থীর সম্পত্তির পরিমাণ এক কোটি টাকার বেশি। এবার দিল্লি ভোটে আম আদমি পার্টি, বিজেপি ও কংগ্রেস থেকে সবচেয়ে বেশি সংখ্যক বয়স্ক প্রার্থী লড়ছেন।
৮ ফেব্রুয়ারি রয়েছে দিল্লি বিধানসভা ভোট। ২০১৫ সালের নির্বাচনে কোটিপতি প্রার্থী ছিলেন ১৪৩ জন। নির্বাচন কমিশনে দেওয়া হলফনামা থেকে জানা যাচ্ছে, ওই ১৬৪ জনের মধ্যে ১৩ জন প্রার্থীর সম্পত্তির পরিমাণ ৫০ কোটি টাকারও বেশি। এই ধনী প্রার্থীদের তালিকায় প্রথম চারজনই অরবিন্দ কেজরিওয়ালের আম আদমি পার্টির। সব মিলিয়ে ৫০ কোটির ক্লাবে রয়েছেন আপের ছ’ জন, কংগ্রেসের চার এবং বিজেপির তিনজন।
ধনীতম প্রার্থীর তালিকায় প্রথমে রয়েছেন মুন্ডকা-র প্রার্থী ধর্মপাল লাকড়া। দিল্লি বিধানসভা ভোটে এখনও পর্যন্ত সবচেয়ে ধনী প্রার্থী ধর্মপালের স্থাবর ও অস্থাবর মিলিয়ে রয়েছে ২৯২.১ কোটি টাকার সম্পত্তি। দ্বিতীয় স্থানেও রয়েছেন আর এক আপ প্রার্থী, পার্মিলা টোকাস। আর কে পুরম নির্বাচনী কেন্দ্রের এই প্রার্থী ঘোষণা করেছেন, তাঁর সম্পত্তির পরিমাণ ৮০.৮ কোটি টাকা। প্রসঙ্গত, বর্তমান বিধায়কদের মধ্যে টোকাস-ই সবচেয়ে ধনী প্রার্থী, যিনি এবারও ভোটে লড়ছেন। পার্মিলা টোকাসের কাছাকাছিই রয়েছেন আম আদমি পার্টির বদরপুরের প্রার্থী রাম সিংহ নেতাজি। প্রাক্তন কংগ্রেস নেতা এবং হালের আপ প্রার্থী রাম সিংহের সম্পত্তির পরিমাণ ৮০ কোটি টাকা। চতুর্থ স্থানে রয়েছেন পটেল নগর কেন্দ্রের আপ প্রার্থী রাজকুমার আনন্দ। ৭৬ কোটি টাকার সম্পত্তি রয়েছে তাঁর। কোটিপতি প্রার্থীদের মধ্যে পঞ্চম স্থানে রয়েছেন কংগ্রেসের প্রিয়াঙ্কা সিংহ। টোকাসের প্রতিদ্বন্দ্বী প্রিয়াঙ্কার সম্পত্তির পরিমাণ ৭০.৩ কোটি টাকা। এরপর, ষষ্ঠ, সপ্তম ও অষ্টম কোটিপতি প্রার্থীর তিনজনই বিজেপির। ছাতরপুর কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী ব্রহ্মসিংহ তানওয়ারের মোট সম্পত্তি ৬৬.৩ কোটি টাকা। কৃষ্ণনগরের বিজেপি প্রার্থী অনিল গয়াল ও বিজাস্বন কেন্দ্রের সৎপ্রকাশ রানার সম্পত্তি যথাক্রমে ৬৪.১ কোটি এবং ৫৭.৪ কোটি টাকা। নবম ও দশম কোটিপতি প্রার্থীর জায়গায় আপ- এর দুই প্রার্থী ধনওয়ান্তি চন্ডিলা ও নরেশ বলওয়ানের সম্পত্তি যথাক্রমে ৫৯.৯ কোটি এবং ৫৬.৩ কোটি টাকা। রাজৌরি গার্ডেনের আপ প্রার্থী চন্ডিলার প্রায় আড়াই কোটি টাকা মূল্যের সোনার গয়না এবং ২ লক্ষ টাকার রুপোর গয়না রয়েছে।
এদিকে দিল্লি বিধানসভা ভোটে প্রার্থীদের মধ্যে ৫ জনের সম্পত্তি এক লক্ষ টাকারও নীচে। সব চেয়ে কম সম্পত্তির মালিক এবং এবারের দিল্লি ভোটে নবীনতম প্রার্থী কংগ্রেসের রকি তুসিদ। দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র সংসদের প্রাক্তন সভাপতি রকির মোট সম্পত্তি ৫৫ হাজার ৫৭৪ টাকা। কোনও গাড়ি, গয়না কিংবা নিজের নামে কোনও জমি-জায়গা নেই রাজেন্দ্র নগরের এই কংগ্রেস প্রার্থীর।
পাশাপাশি, এবার দিল্লি বিধানসভা ভোটে প্রার্থীদের গড় বয়সও গতবারের তুলনায় বেশি। আপ প্রার্থীদের গড় বয়স ৪৭ বছর ৩ মাস, বিজেপি প্রার্থীদের ৫২ বছর ৮ মাস এবং কংগ্রেসের ৫১ বছর ২ মাস।

ধারাবাহিকভাবে পাশে থাকার জন্য The Bengal Story র পাঠকদের ধন্যবাদ। আমরা শুরু করেছি সাবস্ক্রিপশন অফার। নিয়মিত আমাদের সমস্ত খবর এসএমএস এবং ই-মেইল এর মাধ্যমে পাওয়ার জন্য দয়া করে সাবস্ক্রাইব করুন। আমরা যে ধরনের খবর করি, তা আরও ভালোভাবে করতে আপনাদের সাহায্য আমাদের উৎসাহিত করবে।

Login Support us

You may also like

India Coronavirus Death Toll