মার্চের মধ্যেই দেশের রাস্তায় চালকবিহীন গাড়ি, চূড়ান্ত পর্যায়ের পরিকল্পনায় আইআইএসসি-উইপ্রো

২০২০ এর মার্চের মধ্যে ভারতের রাস্তায় নামতে চলেছে চালকবিহীন গাড়ি। ইন্ডিয়ান ইন্সটিটিউট অফ সায়েন্স (আইআইএসসি) ও উইপ্রোর যৌথ উদ্যোগে ভারতীয় রাস্তায় আত্মপ্রকাশ করতে চলেছে চালকবিহীন গাড়ি।
আইআইএসসি ও উইপ্রোর গবেষক ও ইঞ্জিনিয়ারদের মিলিত প্রয়াসে ভারতীয় রাস্তায় চালকবিহীন গাড়ি তৈরির উদ্যোগ শুরু হয়ে গিয়েছে। সূত্রের খবর, আমেরিকা ও ইউরোপের রাস্তায় কেমনভাবে স্বয়ংক্রিয় গাড়ি চলে তা নিয়ে দীর্ঘ পরীক্ষা-নিরীক্ষা করছেন গবেষকরা। কিন্তু আইআইএসসির বিজ্ঞানী, গবেষক বা উইপ্রোর ইঞ্জিনিয়ারদের সামনে আসল চ্যালেঞ্জ, কীভাবে ভারতীয় রাস্তায় এই স্বয়ংক্রিয় গাড়ি চালানো যায়। আইআইএসসি ও উইপ্রোর মোট ২০০ জনের এই টিমে রয়েছেন আইআইএসসির বিভিন্ন বিভাগের ৬ জন অধ্যাপক।
উইপ্রোর এআই প্রধান ডক্টর রামচন্দ্র বুডিহাল জানান, ভারতীয় পরিবেশে চালকবিহীন গাড়ি চালানোর জন্য চূড়ান্ত পরিকল্পনা চলছে। তাঁর কথায়, এক্ষেত্রে ইউরোপ বা আমেরিকা থেকে প্রাপ্ত তথ্য দিয়ে বিশেষ সুবিধা হবে না। কারণ, ইউরোপ বা আমেরিকার রাস্তা আর ভারতের রাস্তার মধ্যে আকাশ পাতাল ফারাক। ভারতীয় পরিবেশে স্বয়ংক্রিয় গাড়ি চালানোই তাঁদের কাছে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ বলে জানান ডক্টর বুডিহাল। আইআইএসসির ইলেকট্রিকাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক এ জি রামকৃষ্ণণের কথায়, ইউরোপ, আমেরিকার ট্র্যাফিক আইন অনেক কঠোর, সেখানের মানুষজনও নির্দিষ্ট আইন অনুসরণ করেন। কিন্তু ভারতীয় রাস্তায় প্রচুর বাধা। পথচলতি মানুষ থেকে সাইকেল, অটো রিকশা, বিশৃঙ্খলভাবে চলাফেরা করাই যেন সবার অভ্যাস। তাছাড়াও, আমাদের রাস্তার পরিকাঠামোও চালকবিহীন গাড়ি চালানোর পথে অন্তরায় হয়ে দাঁড়াচ্ছে। সবদিক খেয়াল করে চালকবিহীন গাড়ি চালানোটাই তাঁদের কাছে আসল চ্যালেঞ্জ বলে মনে করছেন অধ্যাপক রামকৃষ্ণণ।
উইপ্রোর ১৮ জন ইঞ্জিনিয়ারের দল ইতিমধ্যেই একটি প্রজেক্ট শুরু করে দিয়েছেন। তবে বাজার চলতি কোনও চালকবিহীন গাড়ির মডেল নয়, নিজেরাই ইলেকট্রিক গাড়ি তৈরি করেছেন তাঁরা। এখন চলছে সেই গাড়িকে ভারতীয় পরিবেশের সঙ্গে খাপ খাওয়ানোর গবেষণা। সব ঠিকঠাক চললে ২০২০ সালের মার্চে ভারতীয় রাস্তায় দেখা যাবে চালকবিহীন গাড়ি।

Comments
Loading...