কম খরচে, ঘরোয়া পদ্ধতিতেই হবে চুলের পরিচর্যা

সেক্ষেত্রে চুলকে কিভাবে পরিচর্যা করলে হেয়ার ফল নিয়ন্ত্রণে আনা যাবে তার দিকে বিশেষ মনোযোগ দেওয়া উচিত।

চুল পড়া নিয়ে পুরুষ-নারী উভয়ের মধ্যেই একটা চিন্তা কাজ করে। ছোট বয়স থেকেই চুল পড়ার সমস্যায় সকলেই জর্জরিত। মূলত পরিবেশের দূষণ, অতিরিক্ত কাজের চাপ, মানসিক প্রেসার, নানা রকম শারীরিক সমস্যা এছাড়াও কোন কোন ক্ষেত্রে জিনগত কারণে চুল পড়ে থাকে। স্বাভাবিকের তুলনায় রোজ যদি বেশি চুল পড়তে শুরু করে তবে তা বেশ চিন্তার একটি বিষয়। সেক্ষেত্রে চুলকে কিভাবে পরিচর্যা করলে হেয়ার ফল নিয়ন্ত্রণে আনা যাবে তার দিকে বিশেষ মনোযোগ দেওয়া উচিত।

সাধারণ মানুষের মধ্যে একটি ধারণা রয়েছে যে, চুলের যত্ন নিতে গেলে প্রচুর সময় ব্যয় এবং বেশ খরচ সাপেক্ষ একটি বিষয়। অনেকে আবার সঠিক পদ্ধতি জানে না বলে ঘরোয়া উপায়েও চুলের পরিচর্যা করতে পারেন না। তাই আজ কথা হোক, কত কম খরচে সামান্য কিছু ঘরোয়া উপকরণ দিয়ে আপনার চুলের পরিচর্যা করা যেতে পারে।

চুল পরিচর্যায় অ্যালোভেরার কামাল:

অ্যালোভেরা যেমন ত্বকের জন্য খুব ভাল তেমনি চুলের জন্য বেশ উপযোগী একটি উপাদান। চুল পড়া বন্ধ এবং নতুন চুল গজাতে সাহায্য করার পাশাপাশি মাথার ত্বকের চুলকানি জাতীয় সমস্যা দূর করতে পারে। চুলের পরিচর্যায় কীভাবে ব্যবহার করবেন অ্যালোভেরা? অ্যালোভেরার একটি বড় পাতা দিয়ে তার ভেতর থেকে শাঁস বের করে নিন। এরপর ওই থকথকে শাঁস দিয়ে মাথার ত্বকে ভাল করে লাগিয়ে ম্যাসাজ করুন। টানা ৩০ মিনিট রাখার পর ঠান্ডা জলে মাথা ধুয়ে নিন। সপ্তাহে তিন থেকে চারদিন ব্যবহার করলেই হাতেনাতে ফল পাবেন।

মেথির ব্যবহার:

চুল পড়া আটকাতে মেথির ব্যবহার অপরিহার্য। এর মধ্যে থাকে প্রোটিন এবং নিকোটিনিক অ্যাসিড যা চুলের গোড়ায় গিয়ে চুলকে মজবুত উজ্জ্বল ও লম্বা করে। এককাপ মেথি সারারাত জলে ভিজিয়ে রেখে পরদিন সকালে ভাল করে পেস্ট করে নিন। এরপর ওই পেস্ট করা মেথি চুলের ৩০ মিনিটের জন্য লাগিয়ে রাখুন। মেথির পেস্টটি শুকিয়ে গেলে শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন। এমনটা ঘনঘন না করে মাসে একবার বা দুইবার করা যেতে পারে।

আমলকিতে চুল তাজা:

চুলের পুষ্টি বৃদ্ধি করতে আমলকি ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ। এতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি ও অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং আন্টি ইনফ্ল্যামেটারি জাতীয় উপাদান, যা চুল পড়াকে দারুণভাবে আটকাতে পারে। কিভাবে ব্যবহার করবেন আমলকি? এক কাপ নারকেল তেলের মধ্যে ৩-৪টি শুকনো আমলকি দিয়ে তেলের রঙ কালো হয়ে আসা পর্যন্ত ফুটিয়ে নিন। এরপর শ্যাম্পু করার আগে সেই তেল দিয়ে মাথায় ভাল করে ম্যাসাজ করে নিন। সপ্তাহে দুবার করলেই যথেষ্ট।

Comments
Loading...