অল্পতেই মাথা ধরার সমস্যা? রইল ঘরোয়া টোটকায় মুক্তির উপায়

জানা আছে কি ঘরোয়া টোটকায় কীভাবে মিলতে পারে মাথা ধরার সমস্যা থেকে মুক্তি?

একটুতেই মাথা ধরার সমস্যা? চিকিৎসকরা বলছেন, রক্তচাপের সামান্য তারতম্য ঘটলে মাথায় যন্ত্রণা শুরু হয়। এটি কখনও কখনও শরীরে অক্সিজেনের পরিমাণ কমে গেলে, অতিরিক্ত মানসিক ও শারীরিক চাপের কারণেও হতে পারে। দৈনন্দিন কর্মজীবনে আমাদের হাতে দু’দণ্ড সময় নেই। তাই সকাল থেকে মাথা ধরে থাকলে ঘরে কিনে রাখা পেইন কিলার দিয়ে উপশম ঘটাই মাথা যন্ত্রণার। কিন্তু চিকিৎসকরা বলছেন, যেকোনো পেইন কিলারই আমাদের শরীরের জন্য খুব ক্ষতিকারক।

মানুষ নিরুপায়। শারীরিক অসুস্থতাকে নির্মূল করতে পেইন কিলারের আশ্রয় নিতে বাধ্য হয়। কিন্তু জানা আছে কি ঘরোয়া টোটকায় কীভাবে মিলতে পারে এই রোগ থেকে মুক্তি।

দেখে নিন ঘরোয়া টোটকা কামাল

  • মাথা ধরায়, বিশেষ করে ঠান্ডা লেগে মাথা ধরলে আদার চেয়ে উপকারী আর কিছুই নেই। আদার রস মাথা ধরা কমানোর পাশাপাশি শরীরের রক্ত চলাচলকেও নিয়ন্ত্রণে রাখে। এছাড়া সর্দি কাশির সমস্যা থাকলে চিকিৎসকরা আদা-চা খাওয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকেন।
  • গরম মশলার অন্যতম উপাদান লবঙ্গের মধ্যে ঔষধি গুণাগুণ যথেষ্ট। দাঁতে ব্যথা হলে আমরা অনেকেই লবঙ্গের তেল বা গোটা লবঙ্গ ওষুধের মতো ব্যবহার করে থাকি। কিন্তু লবঙ্গ যে দ্রুত মাথা ধরা কমিয়ে ফেলতে পারে তা অনেকেরই অজানা। একটি কাপড়ের রুমালে বেশ কয়েকটি লবঙ্গ নিয়ে নাক দিয়ে তার ঝাঁজ নিলে খুব সহজেই মাথা ধরা কমে যায়।
  • লেবু নিজেই খুব গুণসম্পন্ন একটি ফল। এতে ভিটামিন-সি থাকে। যা আমাদের শরীরে বিভিন্ন রোগের সঙ্গে মোকাবিলা করতে পারে। তেমনি মাথা ধারায় লেবুর উপকারিতা যথেষ্ট। হারবাল চায়ের সঙ্গে অর্ধেক লেবুর রস মিশিয়ে খেলে অতি সহজেই মাথা ধরা কমে যায়।
Comments
Loading...