দাঁতের শিরশিরানি থেকে মুক্তি পেতে চান? তেজপাতাতেই মুশকিল আসান

দাঁতকে সুন্দর ঝকঝকে করতে তেজপাতা কিভাবে ব্যবহার করব?

পরিবারের বয়স্ক সদস্যরা সব সময় বলে থাকেন ছোট থেকেই দাঁতের যত্ন নেওয়া উচিত। কিন্তু ব্যস্ত জীবনে ছোটখাটো অঙ্গগুলির প্রতি আমাদের অবহেলার সীমা নেই। আবার অনেকেই মনে করি দামি টুথব্রাশ আর পেস্ট ব্যবহার করলেই বুঝি দাঁতের যত্ন নেওয়া হয়! এতে করে দাঁত ঝকঝকে হলেও রোগ-ভোগের হাত থেকে মুক্তি পাওয়া যায় না।

আমাদের সকলের রান্নাঘরেই তেজপাতা থাকে। তেজপাতা রান্নায় ব্যবহৃত অতি প্রয়োজনীয় বস্তু। কিন্তু এটা কী জানা আছে! দাঁতকে সুন্দর ঝকঝকে আর দাঁতের শিরশিরানির হাত থেকে বাঁচাতে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিয়ে থাকে তেজপাতা। চলুন দেখে নেওয়া যাক দাঁতকে সুন্দর ঝকঝকে করতে তেজপাতা কিভাবে ব্যবহার করব।

দাঁত সাদা রাখতে তেজপাতা দারুণ উপকারী। তবে এই তেজপাতাকে মেশাতে হবে কোন একটি টক ফলের খোসার সঙ্গে। যেমন ধরুন কমলালেবু বা পাতিলেবুর শুকনো খোসা। যদি আপনার মাড়ি ব্যথা বা মুখে দুর্গন্ধ সমস্যা থাকে তাহলে অবশ্যই রাখবেন ২-৩টি লবঙ্গ। এই তিনটি উপাদানকে একসঙ্গে মিহি করে গুঁড়ো করে নিন। তারপর ওই মিশ্রণে মিশিয়ে নিন সামান্য নুন।

গুঁড়ো করা মিশ্রণটিতে সামান্য জলের সঙ্গে মিশিয়ে সপ্তাহে ৩ দিন অন্তত এক বেলা দাঁত মাজুন। রোজ মাজার প্রয়োজন নেই, এতে দাঁতের ক্ষতি হতে পারে। দাঁতের হলদে ভাবের ওপর নির্ভর করবে সপ্তাহে দু’দিন না তিন দিন ব্যবহার করবেন।

Comments
Loading...