ওয়োর বিরুদ্ধে এফআইআর, কয়েকশো কোটি টাকা প্রতারণার অভিযোগ বেঙ্গালুরুর হোটেল সংগঠনের, অভিযোগ অস্বীকার

অনৈতিক ও অসাধু উপায়ে ব্যবসা চালানোর অভিযোগে ওয়ো কর্ণধার রীতেশ আগরওয়ালের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করল বেঙ্গালরুর হোটেল সংগঠন। অনলাইন হোটেল বুকিং সংস্থার বিরুদ্ধে কয়েকশো কোটি টাকা প্রতারণার অভিযোগ করেছে বেঙ্গালরুর হোটেল সংগঠনটি। সমস্ত অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছে ওয়ো।
সপ্তাহ খানেক আগে বেঙ্গালরুর এক হোটেল মালিক নটরাজন ভিআরএস ওয়োর বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেছিলেন। এরপর ব্রুহাট বেঙ্গালরু হোটেলস অ্যাসোসিয়েশনের তরফেও পুলিশ কমিশনারকে একটি চিঠি লেখা হয়। চিঠিতে অনলাইন ওয়ো কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে তদন্তের আর্জি জানিয়েছে বেঙ্গালরুর হোটেল সংগঠন।
ঠিক কী অভিযোগ দেশের বৃহত্তম অনলাইন হোটেল বুকিং সংস্থা ওয়োর বিরুদ্ধে? বেঙ্গালরুর হোটেল সংগঠনের অভিযোগপত্রে লেখা হয়েছে, ওয়োর অনৈতিক ব্যবসার জন্য হোটেল মালিকদের কয়েকশো কোটি টাকা লোকসান হচ্ছে। হোটেল ও রেস্তরাঁ মিলিয়ে প্রায় ১৮০০ জন সদস্য আছে ব্রুহাট বেঙ্গালরু হোটেলস অ্যাসোসিয়েশনের। তাদের অভিযোগ, ওয়ো নিজেদের পদের অপব্যবহার করছে। প্রযুক্তির মাধ্যমে ইচ্ছাকৃতভাবে হোটেল বুকিংয়ের তথ্য বিকৃত ও পরিবর্তন করে হোটেল মালিকদের সঙ্গে প্রতারণা করছে ওয়ো, বলে চাঞ্চল্যকর অভিযোগ করা হয়েছে। বেঙ্গালরুর পুলিশ কমিশনারকে পাঠানো চিঠিতে লেখা হয়েছে, ওয়োর অনৈতিক ও অসাধু ব্যবসার জন্য হোটেল মালিকদের কয়েকশো কোটি টাকা লোকসান হয়েছে।
অন্যদিকে, সমস্ত অভিযোগ উড়িয়ে দিয়ে ওয়ো জানিয়েছে, যে হোটেল সংগঠন তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছে তাদের মধ্যে কয়েকটি হোটেল ছাড়া বেশিরভাগই ওয়োর পার্টনার নয়। যদিও হোটেল সংগঠন পাল্টা দাবি করেছে, তাদের সংগঠনভুক্ত অন্তত ১০০ জন সদস্যের সঙ্গে ওয়োর পার্টনারশিপ আছে। সম্প্রতি কারও কারও সঙ্গে চুক্তি শেষ হয়েছে। তবে শুধু সংগঠনভুক্ত কর্মীদের জন্য নয়, সব হোটেল মালিকের স্বার্থেই ওয়োর বিরুদ্ধে তারা লড়বে বলে জানিয়েছে বেঙ্গালরুর ওই হোটেল সংগঠন।

Comments
Loading...