সপ্তমীর দিন নবান্নের ১৪ তলায় আগুন, মূল প্রশাসনিক ভবনে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় তীব্র চাঞ্চল্য

সপ্তমীর দিন রাজ্যের মূল প্রশাসনিক ভবনে আতঙ্ক। নবান্নের ১৪ তলায় আগুনের ঘন্টায় তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। ১৩ তলায় মুখ্যমন্ত্রী বসেন। সেক্ষেত্রে এরকম একটি গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। 

সপ্তমীর দুপুরে হঠাৎ নবান্নের ১৪ তলায় ধোঁয়া দেখা যায়। খবর ছড়ানো মাত্র যুদ্ধকালীন তৎপরতায় সেখানে পৌঁছায় দমকল। NDRF এর একটি টিমও পৌঁছে যায় নবান্নের উচ্চ কক্ষে। খবর পাওয়া মাত্র ঘটনাস্থলে পৌঁছায় দমকলের ডিজি। এছাড়াও কলকাতা পুলিশের বেশ কয়েকজন পদস্থ অফিসার পৌঁছান নবান্নে। ছুটির দিন থাকায় কার্যত ফাঁকাই ছিল নবান্ন। তবে জরুরী ভিত্তিতে বেশ কয়েকজন কর্মী তখন নবান্নে উপস্থিত ছিলেন। দ্রুত তাঁদের সেখান থেকে সরিয়ে আনা হয়। শেষ পাওয়া খবর অনুযায়ী, দমকলের তিনটে ইঞ্জিনের চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে এসেছে। 

দমকল সূত্র খবর, মোবাইল টাওয়ারের সর্ট সার্টিকেট থেকেই এই বিপত্তি। জানা গিয়েছে, নবান্নের পাশেই একটি টেলিকম সংস্থার অফিস রয়েছে। সেখান থেকেই আগুন ছড়ায়। রাজ্যের প্রধান প্রশাসনিক ভবন নবান্ন। ১৩ তলায় মুখ্যমন্ত্রীর অফিস থাকায়, রাজ্যের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ কাগজপত্র সব দফতরে রয়েছে। যার জেরে সেগুলি নষ্ট হওয়ারও একটা আশঙ্কা দেখা দিয়েছিল। অঘটনের কারণ খতিয়ে দেখছেন আধিকারিরা। অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় মুখ্যসচিব হরেকৃষ্ণ দ্বিবেদী তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন। এছাড়াও রাজ্যের পূর্ত দফতরকে ফায়ার অডিটের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বলে খবর। 

Comments
Loading...