সুপ্রিম কোর্টে শেষ হল অযোধ্যা মামলার শুনানি, রায়ের অপেক্ষা! উত্তর প্রদেশে সরকারি অফিসারদের ছুটি বাতিল

অযোধ্যা মামলার শুনানি শেষ হল সুপ্রিম কোর্টে, স্থগিত রাখা হল রায়দান। আগামী ১৭ ই নভেম্বর সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতির পদ থেকে রঞ্জন গগৈর অবসরগ্রহণের আগেই অযোধ্যা-বাবরি বিতর্কিত জমি মামলার রায়দানের সম্ভাবনা।
বুধবার অযোধ্যা মামলার দৈনিক শুনানির ৪০ তম দিনে টানটান উত্তেজনার পরিস্থিতি তৈরি হয় দেশের শীর্ষ আদালতের এজলাসে। এদিন শুনানির শুরুতেই আরও কিছু সময় চেয়ে সুপ্রিম কোর্টের সাংবিধানিক বেঞ্চের কাছে আবেদন করেন এক আইনজীবী। যার প্রেক্ষিতে সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ সাফ জানিয়ে দেন, যথেষ্ট  হয়েছে, বুধবার বিকেল ৫ টার মধ্যেই অযোধ্যা জমি মামলায় দৈনিক শুনানি শেষ করতে হবে। গত মঙ্গলবারই প্রধান বিচারপতি ইঙ্গিত দিয়েছিলেন, রাজনৈতিক সংবেদনশীল অযোধ্যা মামলার দৈনিক শুনানি পর্যায় বুধবারই শেষ হবে।
এদিকে দৈনিক শুনানির শেষ দিনে তীব্র উত্তেজনার সৃষ্টি হয় শীর্ষ আদালতে। ভরা আদালতে মুসলিম ওয়াকফ বোর্ডের পক্ষে আইনজীবী রাজীব ধবন ‘রাম জন্মভূমি’ চিত্রিত একটি মানচিত্র কুটিকুটি করে ছিঁড়ে ফেলেন। কুণাল কিশোরের লেখা ‘রাম জন্মভূমি’ এই বইটিকে নিয়ে সংশ্লিষ্ট মামলার প্রমাণ হিসাবে উপস্থাপিত করতে চান সর্বভারতীয় হিন্দু মহাসভার পক্ষে আইনজীবী বিকাশ সিংহ। এরপরেই নাটকীয় পরিস্থিতি তৈরি হয়। আগেই এই ধরণের বই প্রমাণ হিসাবে খারিজ করে দিয়েছে শীর্ষ আদালত। এই প্রেক্ষিতে মুসলিম ওয়াকফের পক্ষে আইনজীবী বইটি ছিঁড়ে ফেলার জন্য সুপ্রিম কোর্টের সাংবিধানিক বেঞ্চের অনুমতি চান। প্রতিক্রিয়ায় বিরক্ত প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ বলেন, যা ইচ্ছা তাই করুন। এরপরেই মানচিত্র সহ বইটির পৃষ্ঠা ছিঁড়তে থাকেন আইনজীবী রাজীব ধবন। ক্ষুব্ধ প্রধান বিচারপতি জানান, আদালতের যাবতীয় শিষ্টাচার বিঘ্নিত হয়েছে। এভাবে চললে এজলাস ছেড়ে তিনি বেরিয়ে যাবেন। কিছুক্ষণের বিরতি, তারপর দীর্ঘ সওয়াল জবাব চলে।
এ দিনের শুনানিতে অযোধ্যায় কিছু বিধিনিষেধ জারি করেছে সুপ্রিম কোর্ট। অনুমতি ছাড়া ওই এলাকায় ড্রোন ওড়ানো নিষিদ্ধ করা হয়েছে। জেলা প্রশাসনের চিহ্নিত করে দেওয়া এলাকায় দোকান ও গোডাউন খোলা রাখার ক্ষেত্রে ছাড়া দেওয়া হয়েছে। নিরাপত্তার স্বার্থে গত ১৪ অক্টোবর থেকে আগামী ১০ ডিসেম্বর পর্যন্ত ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে ওই এলাকায়।
এদিকে এদিন সুপ্রিম কোর্টে এই মামলার শুনানি শেষ হওয়ার পর উত্তর প্রদেশের সমস্ত সরকারি আধিকারিকদের ছুটি বাতিল করেছেন মুখ্যম যোগী আদিত্যনাথ। বিশেষ নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়েছে অযোধ্যা সহ উত্তর প্রদেশের বিভিন্ন জায়গায়।

Comments
Loading...