দেড় মাসের বেশি হল সালঁর দরজার দিকে যাওয়া বন্ধ হয়ে গিয়েছে। করোনা সংক্রমণ এড়াতে বাড়িতেই অনেকে নাপিত ডেকে চুল, দাড়ি কাটছেন। কেউ আবার সেই রিস্কেও না গিয়ে সেফটিরেজার দিয়ে নিজেই ন্যাড়া হয়ে যাচ্ছেন। পুরুষ মহিলা নির্বিশেষে সবার জন্য নিজের পরিচর্যা করার হাজারো উপায় আছে। তাই সেলুন-পার্লার কবে খুলবে সেদিকে না তাকিয়ে বাড়িতেই নিজের পরিচর্চা করুন। এই মানসিক চাপের সময় নিজেকে পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখলে মনও ভালো হবে।

 

ঘরোয়া উপায়ে হেয়ার স্পা (Hair Spa at Home)

enjoy spa at home

 

একটি পাত্রে সামান্য নরকেল তেল বা অলিভ অয়েল সামান্য গরম করে নিন। এরপর চুলের গোড়া থেকে চুলের ডগা অবধি খুব ভালো করে ম্যাসাজ করে নিন। কিছুক্ষন থাকার পরে তোয়ালে ভিজিয়ে নিন অথবা মাইক্রোওভেনে তোয়ালেটা কিছুক্ষণ রেখে গরম করে নিন। এরপর স্টিম নেওয়ার জন্য গরম তোয়ালে মাথায় জড়িয়ে ৫ থেকে ৬ মিনিট রেখে দিন। এতে চুল দেখতে ঘন লাগবে ও চুলের গভীরে পুষ্টিও পৌঁছবে। চুলে স্টিম নেওয়া হয়ে গেলে মাইল্ড শ্যাম্পু ব্যবহার করে চুল ধুয়ে নিন। তবে চুল ধোয়ার সময় অবশ্যই ঠান্ডা জল ব্যবহার করবেন। কারণ, গরম জল চুলের গোড়ার ক্ষতি করে। এরপর অবশ্যই কন্ডিশনার ব্যবহার করুন। হেয়ার স্পা এর জন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ও শেষ ধাপ হল হেয়ার মাস্ক।

হেয়ার মাস্কের জন্য ২ টো ডিম, কলা, মধু ও নারকেল তেল বা অলিভ অয়েল একসঙ্গে খুব ভালো করে মিশিয়ে মাস্ক তৈরি করে নিন। ৩০ মিনিটের মত এই মাস্ক রেখে আবার শ্যাম্পু করে চুল ধুয়ে শুকিয়ে নিন আর তাতেই বাড়িতে বসে পেয়ে যাবেন hair spa -এর মতো সতেজতা।

 

ত্বকের যত্ন নিন (Skin Care at Home)

চুলের পর মুখের যত্ন নিতে ঘরোয়া ফেসপ্যাক ব্যবহার করুন। তবে তার আগে তুলোয় গোলাপজল নিয়ে মুখে লাগিয়ে নিন। আগে থেকে মুখ পরিষ্কার করে নেবেন। মুখে গোলাপজল লাগানোর পরে ফেসপ্যাক লাগান। তাতে ফেসপ্যাকের কার্যকারিতা বাড়বে। আর গোলাপজলও ত্বকের গভীরে প্রবেশ করে ত্বক আর্দ্র রাখবে।

 

মাস্কের জন্য যা করবেন

facial at home

 

আধ কাপ কোকো পাউডার, ২ চামচ টক দই, ২ চামচ মধু এবং ৩ চামচ ওটমিল পাউডার দিয়ে একটা মিশ্রণ তৈরি করে নিন। সেটা মুখে লাগিয়ে রাখুন ১০ থেকে ১৫ মিনিট। শুকিয়ে গেলে সামান্য উষ্ণ জলে মুখ ভাল করে ধুয়ে ফেলুন।

 

ময়েশ্চারাইজিংয়ের জন্য

ত্বকের আর্দ্রতা বজায় রাখার জন্য ছোট এক টুকরো আপেল বেটে তার সঙ্গে মধু মিশিয়ে মুখে লাগান। মিনিট পাঁচেক রেখে ঠান্ডা জলে মুখ ধুয়ে ফেলুন।

মুখের সৌন্দর্য অটুট রাখতে সপ্তাহে একদিন মাত্র ৩০ মিনিট সময় বের করুন। এই পদ্ধতিতে সপ্তাহে মাত্র ৩০ মিনিটেই উপকার পাবেন। খরচও সামান্যই। তাই আর পার্লারে না যেতে পারার জন্য হাপিত্যেশ করে বসে থাকা কেন?

 

বাড়ির আরামে স্পা (Enjoy Spa at Home)

স্নানের জল একদম হালকা গরম করে নিন। এই গরমে শরীরে ঠান্ডা জল ঢাললে দারুণ আরাম লাগবে ঠিকই কিন্তু মাসলগুলো শিথিল হওয়ার অবকাশ পায় না। তাই স্নানের জল অল্প গরম করে নিয়ে গায়ে ঢাললে প্রতিটি রোমকূপ খুলে যাবে, শরীরের গ্রন্থিগুলোও শিথিল হতে শুরু করবে।

 

স্পায়ের মতো পায়ের যত্ন (Foot Care at Home)

foot care at home

 

প্রথমে পায়ের যত্ন থেকে শুরু করা যাক। পায়ে ব্যথা থাকলে নিতে পারেন ফুট বাথ। জল হালকা গরম করে একটা গামলায় ঢেলে নিন। তাতে একটু সুগন্ধী এপসম সল্ট মিশিয়ে নিন। যে কোনও ওষুধের দোকানে বা অনলাইনে এপসম সল্ট পেয়ে যাবেন। এবার গামলার জলে পা ডুবিয়ে মিনিট দশেক বসে থাকুন। আরাম তো হবেই, ব্যথাবেদনা থাকলে তা অনেক কমে যাবে।

 

স্নানের জলে এসেনশিয়াল অয়েল

বালতির জলে খানিকটা সুগন্ধী এসেনশিয়াল অয়েল ঢেলে দিন। ওই জলে স্নান করুন। শরীর  সুগন্ধে ভরে উঠবে। কোনও সিন্থেটিক সুগন্ধ ব্যবহার করবেন না। ভরসা রাখুন খাঁটি এসেনশিয়াল অয়েলে। পিঠে, কোমরে ব্যথা থাকলে বালতির জলে মিশিয়ে নিন বাথ সল্ট বা এপসম সল্ট। গায়ে জল ঢাললেই স্পায়ের মতো আরাম পাবেন।

স্নানের আগের সময়টায় মাসাজও করে নিতে পারেন। আঙুলের ডগা দিয়ে পিঠ, ঘাড়, পায়ের পাতা আর গোড়ালি মিনিট দশেক চেপে চেপে মাসাজ করে নিন, অনেকটা হালকা লাগবে।

হাতের কাছে রাখুন পরিষ্কার, নরম সুতির তোয়ালে। স্নানের পর চেপে চেপে গা মুছে জলটা শুষে নিন। স্নান সেরে গা অল্প ভেজা থাকতে থাকতেই ভালোভাবে ময়শ্চারাইজ়ার মেখে নিন। ভেজা ত্বকে ময়শ্চারাইজ়ার ভালো করে শুষে যেতে পারে।

 

বাড়িতে বসে ভ্রুর শেপ ঠিক রাখা

বাড়িতে বসেও ভ্রু শেপ করে নেওয়া যায়। তবে তার জন্য দরকার কয়েকটি জিনিস- একটা ভুরু আঁচড়ানোর ব্রাশ বা স্পুলি। মাস্কারা ব্রাশও এক্ষেত্রে ব্যবহার করা যাবে। আর একটি ছোট কাঁচি।

প্রথমে মুখটা হালকা গরম জলে ধুয়ে নিয়ে, দুই ভুরুর অংশে ট্যালকম পাউডার দিতে হবে। এরপরে, স্পুলি ব্রাশ বা মাস্কারা ব্রাশ দিয়ে ভুরুজোড়া এক এক করে উপরের দিকে স্ট্রোক করে আঁচড়ে নিতে হবে। এবার একদিকের ভুরুর নিচের অংশ হাত দিয়ে টানটান করে ধরে টুইজার দিয়ে একটা একটা করে অতিরিক্ত রোম তুলে ফেলতে হবে। তবে খেয়াল রাখতে হবে, হেয়ার গ্রোথের দিকেই যেন রোম টেনে তোলা হয়। তার বিপরীতে নয়। শুধু ভুরুর আসল শেপের বাইরে থাকা অতিরিক্ত রোম তুললেই যথেষ্ট। বাড়ি বসে শেপ পালটানোর চেষ্টা না করাই ভাল। বড়ো রোমগুলোকে এরপর ছোট কাঁচি দিয়ে কেটে নিতে হবে। দু’ একটা করে রোম তোলার পর একবার করে ব্রাশ করে নিতে হবে, তাতে শেপটা ঠিক আছে কিনা বুঝতে সুবিধে হবে। এরপর অ্যালোভেরা জেল বা কোনও ময়েশ্চারাইজ়ার জাতীয় ক্রিম ব্যবহার করা যেতে পারে।

 

পুরুষদের ত্বক চুলের পরিচর্চা

hair spa at home

 

মহিলাদের পাশাপাশি পুরুষও ত্বকের যত্নের ব্যাপারে সচেতন। পুরুষদের ত্বক ও চুলের যত্ন নেওয়ার জন্য রয়েছে আলাদা বিউটি সেলুন। কিন্তু সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার জন্য আপাতত তা বন্ধ। তাই বাড়িতে বন্দি থেকেও কীভাবে পুরুষ ত্বক ও চুলের যত্ন নেবেন, রইল তার কিছু টিপস।

 

ঘরোয়া ফেসিয়াল (Facial at Home)

অনেকেই মাসে একবার অন্তত পার্লার বা স্যালঁ থেকে ফেসিয়াল করান। ত্বকের পরিপূর্ণ যত্নের জন্য ফেসিয়াল উপকারি বটে। বাড়িতে ত্বকের যত্ন নেওয়ার জন্য সবার আগে ফেস ওয়াশ বা হালকা কোনও সাবান দিয়ে মুখ ধুয়ে নিন। তারপর ঘরে বানানো স্ক্রাব দিয়ে মাসাজ করুন। এটি বানাতে আধ চা চামচ নারকেল তেল ও হাফ চা চামচ কফির গুঁড়ো ব্যবহার করুন। সেটা ভালো করে মিশিয়ে মুখে, গলায় ও কাঁধে হালকা হাতে কিছুক্ষণ মাসাজ করে হালকা গরম জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। মোছার জন্য পার্লারের মত ছোট ছোট তোয়ালে বা রুমালও ব্যবহার করতে পারেন। এবার ঘরোয়া উপায়ে স্টিম বা ভাপ নিতে হবে যাতে রোমকূপ পরিষ্কার হয়। তাই একটা পাত্রে গরম জল নিয়ে মাথার ওপর তোয়ালে দিয়ে ঢেকে মুখ নিচু করে ভাপ নিন। তারপর যে কোনও ফেসমাস্ক ব্যবহার করুন। এক চা চামচ ওটমিল, এক চা চামচ মধু ও অর্ধেকটা কলা চটকে মাস্ক বানিয়ে মুখ, গলা ও কাঁধে মাখুন। পনেরো থেকে কুড়ি মিনিট অপেক্ষা করে ধুয়ে ময়েশ্চারাইজার মাখুন।

 

ওয়াক্সিং (Waxing)

বাড়িতে ওয়াক্সিং স্ট্রিপ বা ওয়াক্সিং কিট দিয়েই কাজ চালাতে পারেন। যদি না থাকে তাহলে আপাতত সমাধান মিলতে পারে রেজর ও হেয়ার রিমুভাল ক্রিমে।

 

মেনিকিওর পেডিকিওর (Manicure and Pedicure)

how to make comfort of spa at home

 

হাত ও পায়ের যত্ন নিলে সেটি শুধুমাত্র হাত-পা পরিষ্কারই করবে না, রিলাক্সেশনেরও কাজ করবে। সামান্য উষ্ণ গরম জলে লবণ, লেবুর রস ও কয়েক ফোঁটা শ্যাম্পু বা বডি ওয়াশ দিয়ে হাত ও পা ভিজিয়ে রাখুন দশ থেকে পনেরো মিনিট। এরপর নখের চারপাশ পরিষ্কার করুন, নখ কাটুন ও একটি ব্রাশ দিয়ে ঘষে হাত ও পায়ের ত্বক পরিষ্কার করুন। তারপর পায়ের গোড়ালি ঘষে মরা ত্বক পরিষ্কার করুন। পরিষ্কার জল দিয়ে হাত এবং পা ধুয়ে মুছে ময়েশ্চারাইজার লাগিয়ে নিন।

লকডাউন কবে উঠবে জানা নেই। আর লকডাউন উঠলেই যে সালঁয় যাওয়া ঠিক হবে, তেমন পরিস্থিতি ও নেই। তাই ত্বকের যত্ন নিতে বাড়িতেই করে ফেলুন সব বন্দোবস্ত আর উপভোগ করুন home spa -এর আরাম।

ধারাবাহিকভাবে পাশে থাকার জন্য The Bengal Story র পাঠকদের ধন্যবাদ। আমরা যে ধরনের খবর করি, তা আরও ভালোভাবে করতে আপনাদের সাহায্য আমাদের উৎসাহিত করবে।

Login Support us

You may also like