আসন সমঝোতা নিয়ে টানাপোড়েন, জট কাটাতে উদ্যোগ বাম-কংগ্রেস দুই শিবিরেই

২৫ তারিখ ফের বসা হবে তারপর ২৮ জানুয়ারি আসন বণ্টন চূড়ান্ত করে ঘোষণা করে দেওয়া হবে

বিধানসভা ভোটে বাম-কংগ্রেস জোট বেঁধে লড়বে, এই সিদ্ধান্ত আগেই হয়েছিল। এবার শুরু আসন বণ্টন নিয়ে প্রাথমিক আলোচনা। রবিবার আরএসপির ক্রান্তি প্রেসে বৈঠকে বসে দুই পক্ষ। 

হাজির ছিলেন এআইসিসির তরফে জোট আলোচনার দায়িত্বপ্রাপ্ত অধীর চৌধুরী, প্রদীপ ভট্টাচার্য, আব্দুল মান্নান এবং নেপাল মাহাত। অন্যদিকে বামেদের পক্ষে ছিলেন বিমান বসু (বামফ্রন্ট চেয়ারম্যান), সূর্যকান্ত মিশ্র (সিপিএম রাজ্য সম্পাদক), মনোজ ভট্টাচার্য (আরএসপির সাধারণ সম্পাদক), নরেন চ্যাটার্জি (ফরওয়ার্ড ব্লকের বাংলা কমিটির চেয়ারম্যান) এবং স্বপন ব্যানার্জি (সিপিআইয়ের রাজ্য সম্পাদক)। ১ ঘণ্টা বৈঠক চলে। 

সূত্রের খবর, বৈঠকে ১৩০ টি আসনের দাবি জানায় কংগ্রেস। এর মধ্যে মালদহ, মুর্শিদাবাদ, উত্তর ও দক্ষিণ দিনাজপুর, বাঁকুড়া ও পুরুলিয়া জেলায় বেশিরভাগ আসনই চেয়েছে কংগ্রেস। আসন সমঝোতা নিয়ে দুই পক্ষে প্রায় ১ ঘণ্টা আলোচনা চলে। সূত্রের খবর, আসন বণ্টনের প্রাথমিক আলোচনায় কংগ্রেসের ১৩০ আসনের দাবি বামেরা মেনে নেয়নি। কথোপকথনে কখনও চড়েছে আবার কখনও নেমেছে গলার স্বর। শেষ পর্যন্ত ঠিক হয়েছে ২৫ তারিখ ফের বসা হবে। তারপর ২৮ জানুয়ারি আসন বণ্টন চূড়ান্ত করে ঘোষণা করে দেওয়া হবে। কিন্তু প্রশ্ন হল আসন বণ্টনে জট কাটবে কী করে? রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মতে, প্রথম আনুষ্ঠানিক আলোচনার শুরুর দিনই আসন বণ্টন নিয়ে সব চূড়ান্ত হয়ে যাবে এমনটা হওয়ার কথা ছিল না। কিন্তু দু’পক্ষ যেভাবে আলোচনার মাধ্যমে সমস্যা মিটিয়ে ফেলার উদ্যোগ নিয়েছে তাতে আশার আলো দেখছেন তাঁরা। সেক্ষেত্রে আসন বণ্টন নিয়ে বড়ো সমস্যা হবে না বলেই মনে করা হচ্ছে। 

সাংবাদিকদের সামনে অধীর বা বিমান বসু, কেউই সমস্যার কথা বলেননি বরং অনুকূল পরিবেশে বন্ধুত্ব্বপূর্ণ আলোচনা হয়েছে বলে জানিয়েছেন অধীর চৌধুরী। অধীরের বক্তব্যকে সমর্থন করেছেন বিমান বসু। 

Comments
Loading...