মনমোহন সিংহের এসপিজি নিরাপত্তা তুলে নিল কেন্দ্র, প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তায় শুধুই সিআরপিএফ

এসপিজি নিরাপত্তা তুলে নেওয়া হল মনমোহন সিংহের। এখন থেকে তাঁর নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকবে সিআরপিএফ। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের একটি বিবৃতিতে বলা হয়েছে ৩ মাস ধরে ক্যাবিনেট সচিবালয় ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের রুটিন মূল্যায়নের পর এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। বিবৃতিতে আরও বলা হয়, এবার থেকে শুধুমাত্র জেড প্লাস ক্যাটাগরির নিরাপত্তা পাবেন প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী।
সূত্রের খবর, এবার থেকে মাত্র চার জন রাজনীতিবিদের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকবে এসপিজি। তাঁরা হলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, কংগ্রেস সভাপতি সনিয়া গান্ধী, রাহুল গান্ধী ও প্রিয়াঙ্কা গান্ধী বঢরা।
১৯৮৫ সালে ইন্দিরা গান্ধীর হত্যাকাণ্ডের পর প্রধানমন্ত্রীদের নিরাপত্তার কথা ভেবে ৩ হাজার বিশেষ রক্ষী সম্বলিত এসপিজি বা স্পেশাল প্রোটেকশন গ্রুপ গঠন করা হয়। কিন্তু ১৯৯১ সালে প্রধানমন্ত্রী রাজীব গান্ধীর হত্যার পর এসপিজি আইন সংশোধন করা হয়। সংশোধিত এসপিজি অ্যাক্টে বলা হয়, প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী ও তাঁদের পরিবারকে ১০ বছরের জন্য নিরাপত্তা দেবে এসপিজি। ২০০৩ সালে অটলবিহারী বাজপেয়ী সরকার এসপিজি আইনে ফের সংশোধনী আনে। নতুন আইনে প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী ও তাঁদের পরিবারকে সুরক্ষা প্রদানের দায়িত্ব প্রতি বছর পর্যালোচনার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংহের কন্যারা অবশ্য ২০১৪ সালের পর থেকে আর এসপিজি নিরাপত্তা নেননি। একইভাবে, অটলবিহারী বাজপেয়ীর মৃত্যুর পর তাঁর পালিতা কন্যাও  এসপিজি নিরাপত্তা তুলে নেওয়ার আবেদন জানিয়েছিলেন। সূত্রের খবর, দু’বারের প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংহ নিজে নিরাপত্তা নিয়ে ভাবিত নন।

সাধারণত কোনও রাজনৈতিক ব্যক্তির উপর হামলার আশঙ্কা কতখানি, তা সমীক্ষা করে নিরাপত্তার ব্যবস্থা করে কেন্দ্র। সূত্রের খবর, সমীক্ষায় উঠে এসেছে প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রীর উপর থ্রেট পারসেপশন বা হামলার সম্ভাবনা এই মুহূর্তে কম। তাই এসপিজি নিরাপত্তা সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। পরবর্তীতে থ্রেট পারসেপশন বাড়লে ফের এসপিজি নিরাপত্তা পাবেন মনমোহন সিংহ।

Comments
Loading...