গাড়ি শিল্পে ভয়াবহ বিপর্যয়, ৪০ শতাংশেরও বেশি পড়ল মারুতির শেয়ার, বিক্রি কমেছে প্রায় ৩৫ শতাংশ

বিশ্বজুড়ে গাড়ি শিল্পে চলছে ভয়াবহ মন্দা। ভারতও তার ব্যতিক্রম নয়। গত ৭ বছর ধরে কমছে মারুতি সুজুকির গাড়ি বিক্রি, জুলাই মাসেই মারুতির শেয়ার পড়েছে ৪০ শতাংশেরও বেশি। ক্রেতার অভাবে ধুঁকছে দেশের অন্যতম বৃহৎ গাড়ি নির্মাণ সংস্থা।
গাড়ি আছে কিন্তু ক্রেতার দেখা নেই। ক্রেতার অভাবে গাড়ির পাহাড় জমছে শো-রুমগুলিতে, লোকসানের মুখে ব্যবসা গুটিয়ে নিতে বাধ্য হচ্ছেন ডিলাররা। ক্ষতির পরিমাণ কমাতে পর্যায়ক্রমে গাড়ি উৎপাদন বন্ধ রাখছে ভারতের প্রথম সারির অটোমোবাইল সংস্থাগুলি। তা সত্ত্বেও লোকসান এড়ানো যাচ্ছে না। ভারতের অন্যতম বড় গাড়ি নির্মাণ সংস্থা মারুতি সুজুকি ইন্ডিয়া লিমিটেডের তরফে প্রকাশ, ২০১২ সাল থেকে ক্রমশ খারাপ হচ্ছে গাড়ির বাজার। চলতি বছরের জুলাই পর্যন্ত সংস্থার মোট গাড়ি বিক্রির হার ৩৪ শতাংশ কমে গিয়েছে, বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে জানিয়েছে মারুতি।
২০১২ সালের অগাস্ট মাস থেকে খারাপ থেকে খারাপতর হচ্ছে মারুতি সুজুকির গাড়ি বিক্রির হার। মারুতির তরফে এক বিবৃতিতে প্রকাশ, জুলাই মাসে গড়ে ৪০ শতাংশেরও বেশি নেমে গিয়েছিল মারুতির শেয়ার। চলতি বছরের জুলাই মাসে মারুতির ছোট গাড়িগুলির বিক্রি প্রায় ৭০ শতাংশ নেমে গিয়েছে। এসইউভির বিক্রি কমেছে ৩৮ শতাংশ, এছাড়া অন্যান্য মডেলের বিক্রির হার কমেছে ২৩ শতাংশ। এই চাপের মুখে নতুন মডেল বাজারে আনতে ভরসা পাচ্ছে না মারুতি সুজুকি। এক গাড়ি বিশেষজ্ঞের কথায়, একে গাড়ি বাজারের খারাপ অবস্থা, তারপর নতুন কোনও মডেল বাজারে না আনতে পারায় মারুতি ছেড়ে অন্য প্রোডাক্টের দিকে ঝুঁকছেন ক্রেতারা।
গাড়ি শিল্পে এই তীব্র মন্দার জন্য দেশের অর্থনৈতিক পরিস্থিতিকে দায়ী করছেন বিশেষজ্ঞদের কেউ কেউ। কেন্দ্রীয় বাজেটে পেট্রোল বা ডিজেল চালিত গাড়ি বাজারের উন্নতিকল্পে কোনও দিশা নেই। এই প্রেক্ষিতে দেশের গাড়ি বাজারে কার্যত বিপর্যয় নেমে এসেছে, যার প্রভাব থেকে বেরোনোর দাওয়াই খুঁজছে মারুতি সুজুকি।

Comments
Loading...