এয়ার ইন্ডিয়ার ১০০ শতাংশ শেয়ারই বিক্রির সিদ্ধান্ত মোদী সরকারের

আর হয়ত আকাশে এয়ার ইন্ডিয়ার বিমান উড়তে দেখা যাবে না। সরকারিভাবে এয়ার ইন্ডিয়ার ১০০ শতাংশ শেয়ার বিক্রির জন্য নিলামের ডাক দিল কেন্দ্র। সোমবার একটি বিবৃতিতে কেন্দ্র জানিয়েছে, আগামী ১৭ মার্চের মধ্যে আগ্রহী সংস্থাগুলিকে নিলামে অংশ নেওয়ার জন্য আবেদন করতে হবে।
২০১৮ সালে রাষ্ট্রায়ত্ত এই বিমান সংস্থার আংশিক শেয়ার বিক্রির পরিকল্পনা সফল হয়নি মোদী সরকারের। তীব্র ঋণভারে জর্জরিত এই রাষ্ট্রায়ত্ত বিমান সংস্থার পুরো শেয়ার বিক্রির চিন্তাভাবনা অনেক আগেই করেছে মোদী সরকার। এবার সরকারিভাবে সেই উদ্যোগের কথা প্রকাশ্যে এল। কেন্দ্রীয় সরকারি জানাচ্ছে, যে বেসরকারি সংস্থা বা মালিক পক্ষ ১০০ শতাংশ শেয়ার কিনবে, তাদের সংস্থার প্রায় ৩২৬ কোটি ডলারের ঋণভার ও দায় নিতে সম্মত হতে হবে।
প্রায় ৫৮ হাজার কোটি টাকা ঋণভার এবং আর্থিক ক্ষতি সামলাতে না পেরে এয়ার ইন্ডিয়ার পুরো শেয়ারই বিক্রি করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে মোদী সরকার। কেন্দ্র চায়, কোনও ভারতীয় সংস্থার হাতেই এয়ার ইন্ডিয়ার নিয়ন্ত্রণ থাকুক। কোনও বিদেশি সংস্থার এ ব্যাপারে সুযোগ খুবই কম। পাশাপাশি এয়ার ইন্ডিয়ার বেসরকারিকরণ প্রক্রিয়া সুষ্ঠুভাবে হওয়ার জন্য কর্মচারীদের সহযোগিতা চাওয়া হয়েছে। এ ব্যাপারে গত ২ জানুয়ারি অসামরিক বিমান পরিবহণমন্ত্রী হরদীপ সিংহ পুরী কর্মী সংগঠনগুলির সঙ্গে আলোচনা করেন বলে খবর।
প্রসঙ্গত, কিছুদিন আগে শোনা গিয়েছিল, ইন্ডিগো এবং এতিহাদ এয়ারওয়েজের সঙ্গে শেয়ার বিক্রি নিয়ে আলোচনা হয় কেন্দ্রের। সেই ‘ঘরোয়া’ আলোচনা থেকে জানা যায়, এয়ার ইন্ডিয়ার শেয়ার কেনার বিষয়ে সবচেয়ে এগিয়ে রয়েছে ইন্ডিগো।
সূত্রের খবর, কোনও অংশীদার ছাড়া এককভাবে এয়ার ইন্ডিয়া কিনতে প্রবল আগ্রহী ইন্ডিগো। অন্যদিকে, এতিহাদ এয়ারওয়েজ একটি পার্টনারের সঙ্গে নিলামে অংশ নিতে চেয়েছে। ফরেন ডিরেক্ট ইনভেস্টমেন্ট (এফডিআই) বিধি অনুযায়ী আবুধাবির এই বিমান সংস্থা কেবল ৪৯ শতাংশ শেয়ার কিনতে পারবে। এই নিয়ম অনুসারে, কোনও বিদেশি বিমান সংস্থা ভারতীয় এয়ারলাইনের ৪৯ শতাংশ শেয়ারের মালিক হতে পারে। তবে ১০০ শতাংশ বিদেশি বিনিয়োগ করতে পারবে। অর্থাৎ, এতিহাদ-কে ১০০ শতাংশ শেয়ার কিনতে হলে হয় আবুধাবি ইনভেস্টমেন্ট অথরিটি (এডিআইএ) অথবা কোনও দেশীয় সংস্থার সঙ্গে নিলামে বসতে হবে।

Comments
Loading...