খ্যাতির নীচে অন্ধকার! আজও গ্রামে জাতি বৈষম্যের শিকার হতে হয় আমাকে, স্বীকারোক্তি নওয়াজুদ্দিন সিদ্দিকীর

নাম, খ্যাতিতেও কিচ্ছু বদলায়নি, নিজের গ্রামে এখনও আমি জাতি বৈষম্যের শিকার! চাঞ্চল্যকর স্বীকারোক্তি বলিউড অভিনেতা নওয়াজুদ্দিন সিদ্দিকীর।

গ্যাংস অফ ওয়াসিপুর, ,সেক্রেড গেমস খ্যাত অভিনেতা নওয়াজুদ্দিনের কথায়, ‘ভারতে জাতপাতের বীজ এতটাই গভীরে প্রোথিত যে তাঁর খ্যাতি, পরিচিতিও সেখানে ফিকে। উত্তর প্রদেশে নিজের গ্রামে এখনও বর্ণ বৈষম্যমূলক আচরণের মুখোমুখি হতে হয় আমাকে।’

সম্প্রতি এনডিটিভিকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে নওয়াজুদ্দিন বলেন, আমার পরিবারে ঠাকুমা ছিলেন ‘নীচু জাত’ এর। ঠাকুমার জাত পরিচয়ের জন্য ওরা (সমাজ) এখনও আমাদের গ্রহণ করে না।

উত্তর প্রদেশের হাথরসে ১৯ বছরের দলিত তরুণীর ধর্ষণ ও হত্যাকাণ্ড নিয়ে তোলপাড় দেশজুড়ে। এই প্রেক্ষিতে জাতপাত নিয়ে নিজের অভিজ্ঞতা ও মতামত ব্যক্ত করলেন ৪৬ বছর বয়সী অভিনেতা। তিনি বলেন, ‘যেটা ভুল, সেটা ভুলই। হাথরস কাণ্ডে আমাদের শিল্পী মহলও প্রতিবাদ জানিয়েছে। এ নিয়ে বলাটা খুব জরুরি। ভীষণই দুর্ভাগ্যজনক ঘটনা এটা।’

নওয়াজুদ্দিন বলেন, এটা বাস্তব যে আমার খ্যাতির কোনও প্রভাব নেই ‘ওদের’ ওপর। জাতপাতের বিচার ওদের মধ্যে এতটাই গভীরে যে এটা শিরায় শিরায় ছড়িয়ে আছে।

সুধীর মিশ্র পরিচালিত নওয়াজুদ্দিনের ‘সিরিয়াস ম্যান’ ছবিটি সম্প্রতি নেটফ্লিক্স অরিজিন্যালে মুক্তি পেয়েছে। এই সিনেমাটি এমন এক সময়ে মুক্তি পেল যখন ‘উচ্চবর্ণে’র দুষ্কৃতীদের ধর্ষণ ও অত্যাচারে এক ‘দলিত’ কন্যার মৃত্যুর বিচার চেয়ে উত্তাল সারা দেশ। দেওয়ালে পিঠ ঠেকে যাওয়া এক ‘শূদ্র’ কী করতে পারে, কী করতে চায়, তা নিয়ে স্যাটায়ার তৈরি করেছেন পরিচালক। শুধু জাতপাতই নয়, পেরেন্টিং, শিক্ষা ব্যবস্থা, বিজ্ঞানের আড়ালে চলা বুজরুকি, রাজনীতি, সমাজ ও জীবনের বিভিন্ন ক্ষেত্রে অবক্ষয় উঠে এসেছে ছবিতে। সেই সিনেমায় নওয়াজুদ্দিন একজন দলিতের ভূমিকায় অভিনয় করেছেন। যিনি তাঁর ছেলে বিজ্ঞানী বলে মিথ্যে দাবি করেন।

Comments
Loading...