গুজরাতে হাসপাতালে ভেন্টিলেটর বিভ্রাট, শোলের ডায়লগ উল্লেখ করে মুখ্যমন্ত্রী রুপানিকে কটাক্ষ নুসরতের

৪ এপ্রিল। করোনা বিধ্বস্ত গুজরাতে একটি উল্লেখযোগ্য দিন। আহমেদাবাদ সিভিল হাসপাতালে দাঁড়িয়ে মুখ্যমন্ত্রী বিজয় রুপানি ঘোষণা করছিলেন, গোটা পৃথিবী যখন পর্যাপ্ত ভেন্টিলেটরের অভাবের কথা বলছে, তখন গুজরাত দেখিয়ে দিল কীভাবে মেক ইন ইন্ডিয়ার মাধ্যমে সস্তা ভেন্টিলেটর বানিয়ে মানুষের কল্যাণে লাগাতে হয়। এভাবেই প্রধানমন্ত্রী মোদীর স্বপ্নের গুজরাত করোনা মোকাবিলায় গোটা বিশ্বে সম্ভ্রম আদায় করে নিতে পেরেছে, বলেন তাও।
রুপানির কথা শেষ হতে না হতেই গুজরাতের হাসপাতালে সস্তা এবং ভারতীয় ভেন্টিলেটর বসানো হয়। শুধু আহমেদাবাদ সিভিল হাসপাতালেই বসে ২৩০ টি যন্ত্র। তারপর ১৫ দিনও কাটল না, আহমেদাবাদ সিভিল হাসপাতাল থেকে কেন্দ্রের কাছে যুদ্ধকালীন তৎপরতায় ভেন্টিলেটর চেয়ে পাঠানো হল। জানা গেল, রাজকোটে তৈরি সস্তা ভেন্টিলেটর বলে যে মেশিনের উদ্বোধন করেছিলেন স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী রুপানি, সেগুলো আসলে ভেন্টিলেটরই নয়!
অভিযোগ, ভেন্টিলেটরের মতো দেখতে যন্ত্রগুলোর নির্মাতা রাজকোটের ব্যবসায়ী মুখ্যমন্ত্রী রুপানির পুরনো বন্ধু। যার আদত নাম মেকানাইজড অ্যাম্বু ব্যাগ। দেখতে ভেন্টিলেটরের মতো হলেও যা দিয়ে ভেন্টিলেটরের কাজ চালানো অসম্ভব।
এই ঘটনা প্রকাশ্যে আসতেই তোলপাড় শুরু হয়েছে। এমনিতেই করোনাভাইরাসের প্রকোপ রুখতে নাভিশ্বাস উঠছে গুজরাতের। রোজ বাড়ছে সংক্রমিতের সংখ্যা, পাল্লা দিয়ে বাড়ছে মৃত্যু। এই প্রেক্ষিতে প্রশ্ন উঠছে, গুজরাতে করোনাভাইরাস যখন ক্রমেই জটিল থেকে জটিলতর আকার নিচ্ছে, তখন কেন বন্ধুর দেওয়া মেশিনকে ভেন্টিলেটর বলে চালানোর চেষ্টা করলেন গুজরাতের মুখ্যমন্ত্রী? বিরোধীদের দাবি, রুপানির এই কাজকে ফৌজদারি অপরাধ হিসেবে গণ্য করে বিচার হওয়া উচিত। গুজরাতে করোনা মৃত্যুর বাড়বাড়ন্তের পিছনে ভুয়ো ভেন্টিলেটরের অবদান কতটা, তাও খতিয়ে দেখার দাবি উঠছে। সব মিলিয়ে সঙ্কটের সময়ে চরম বিড়ম্বনায় মোদী রাজ্যের বিজেপি সরকার।
এবার এই বিতর্কে ঢুকে বিজেপি তথা মুখ্যমন্ত্রী রুপানির বিড়ম্বনা আরও খানিকটা বাড়িয়ে দিলেন তৃণমূল সাংসদ নুসরত জাহান। সোমবার একটি ট্যুইট করে তিনি তীব্র কটাক্ষ করেন গুজরাতের মুখ্যমন্ত্রীকে। সেখানে তিনি শোলে সিনেমার একটি জনপ্রিয় গানের লাইন অদলবদল করে লেখেন, ইয়ে দোস্তি হাম নেহি ছোড়েঙ্গে, দেশবাসী দম তোড়েঙ্গে মগর, হাম দোস্তকা সাথ না ছোড়েঙ্গে।

বিজেপি আইটি সেলের সঙ্গে পাল্লা দিতে ইদানীং সোশ্যাল মিডিয়ায় নিয়ম করে মুখর হচ্ছেন তৃণমূলের সাংসদ, নেতা মন্ত্রীরা। এর আগে নুসরতের ধারাবাহিক কটাক্ষের মুখে পড়েছিলেন বিজেপি আইটি সেলের প্রধান অমিত মালব্য। এবার গুজরাতের এই ঘটনা নিয়ে সরাসরি মোদীর রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীকে নিশানা করলেন জনপ্রিয় অভিনেতা তথা বসিরহাটের তৃণমূল সাংসদ নুসরত জাহান

Comments
Loading...