৬৮ দিন পর ফের ট্যুইট PK’র, পুরনো ট্যুইটের কথা মনে করালেন BJP’কে

পিকের ট্যুইট গোটা ভোট আবহে নতুন মাত্রা এনে দিয়েছে

ফের ট্যুইট করলেন প্রশান্ত কিশোর (PK)। পুরনো ট্যুইটকে মনে করিয়ে নয়া ট্যুইটে জানালেন, বাংলার মানুষ জবাব দিতে প্রস্তুত। ভোট ঘোষণার রাত পোহাতেই পিকের ট্যুইট গোটা ভোট আবহে নতুন মাত্রা এনে দিয়েছে। 

গত বছর ২১ ডিসেম্বর মমতা ব্যানার্জির দলের ভোট কুশলী প্রশান্ত কিশোর এই অধ্যায়ের প্রথম ট্যুইটটি করেন। অমিত শাহ বোলপুর থেকে রোড শো করে সবে ফিরেছেন দিল্লি। গেরুয়া শিবিরের দাবি, বাংলায় ২০০ আসন নিশ্চিত। বোলপুরের ভিড় তা চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছে। বোলপুরের রোড শোয়ে লোক হয়েছিল চোখে পড়ার মতো। এই আবহে ২১ ডিসেম্বর ট্যুইট করেন পিকে। 

লেখেন, সমর্থক মিডিয়ার ঢক্কানিনাদ সত্ত্বেও বিজেপির দুই সংখ্যা পেরোতে ঘাম ছুটে যাবে। শেষে লেখেন, আমার কথা মনে রাখবেন। যদি ভুল প্রমাণিত হই, আমার কর্মক্ষেত্র ছেড়ে দেব।

ভোট ঘোষণার পরের দিন আবার ট্যুইট করলেন। তাতে লিখলেন, গণতন্ত্র রক্ষায় একটা গুরুত্বপূর্ণ লড়াই লড়তে যাচ্ছে পশ্চিমবঙ্গ এবং বাংলার মানুষ সিদ্ধান্ত নিয়ে অপেক্ষা করছে। তাঁরা সঠিক মানুষকেই বাছবেন। তারপর হ্যাশট্যাগ দিয়ে লিখেছেন, বাংলা নিজের মেয়েকেই চায়। 

শেষে লিখেছেন, ২ মে (ফল ঘোষণা) আমার আগের ট্যুইটটির কথা মনে আছে তো? 

বাংলার ভোটের প্রথম দফার ঠিক ১ মাস আগে পিকের ইঙ্গিতপূর্ণ ট্যুইটের কারণ কী? যেখানে মিডিয়ার একাংশ থেকে শুরু করে গেরুয়া শিবির বিশাল জয়ের ব্যাপারে ষোলো আনা আশাবাদী তখন বিজেপি ২ অঙ্ক পেরোতে হিমশিম খাবে, এমন কথা কোন ভরসায় বলেন পিকে? ভোট ঘোষণার দিন আবার সেই ট্যুইটেই মনে করিয়ে দিলেন আগের ট্যুইটের কথা। 

অমিত শাহ বঙ্গ বিজেপিকে ২০০ আসন জয়ের লক্ষ্যমাত্রা বেঁধে দিয়েছেন। বিজেপি নেতারা নিয়ম করে ২০০ আসন জয়ের চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ছেন। অন্যদিকে তৃণমূলের দাবি আসন পাওয়ায় এবার রেকর্ড করবেন তাঁরা। দুই তরফই জয়ের ব্যাপারে নিশ্চিত। সবমিলিয়ে জমে উঠেছে বাংলার ভোট।

Comments
Loading...