প্রধান মন্ত্রী মোদী: আনলক শুরু হয়েছে, কিন্তু করোনা যায়নি, উৎসবের মরসুমে গাফিলতি নয়

লকডাউন শেষ হলেও করোনা যায়নি। নিজেকে এবং নিজের পরিবারকে সুরক্ষিত রাখতে অবশ্যই মাস্ক পরুন, কোভিড বিধিনিষেধ মেনে চলুন। করোনা পরিস্থিতিতে জাতির উদ্দেশে ভাষণে এমনই বার্তা দিলেন প্রধান মন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

মঙ্গলবার সন্ধে ৬ টায় জাতির উদ্দেশে ভাষণে প্রধান মন্ত্রী বলেন, উৎসবের মরসুমে করোনা ধীরে ধীরে কমছে। দেশে সুস্থতার হার অনেক বেশি, মৃত্যু হার কমেছে। গত কয়েক মাসে দেশবাসীর প্রচেষ্টায় পরিস্থিতি অনেকটা শুধরেছে। কিন্তু আমাদের ভুললে চলবে না, লকডাউন চলে গেলও ভাইরাস যায়নি। আমাদের দেশের বিজ্ঞানীরাও জানপ্রাণ দিয়ে লড়ছেন। বহু দেশ টিকা আবিষ্কারের জন্য কাজ করছেন। তাই টিকা না আসা পর্যন্ত কেউ যেন বিধিনিষেধে কোনও শিথিলতা না দেখান, বার্তা প্রধান মন্ত্রীর। তিনি বলেন, আমেরিকা-ইউরোপের বহু দেশের চেয়ে করোনার লড়াইয়ে এগিয়ে রয়েছে ভারত। জনতা কার্ফু থেকে এ পর্যন্ত অনেক প্রতিবন্ধকতা পেরিয়ে এসেছি আমরা সবাই। এখন অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ডেও গতি এসেছে। এদিন আমেরিকা, ব্রাজিল, স্পেন ও ব্রিটেনের মতো বিশ্বের অন্য করোনা আক্রান্ত দেশগুলির তুলনায় ভারতে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা প্রতি দশ লক্ষে কম বলে জানান প্রধানমন্ত্রী। আজ ২ হাজার ল্যাবরেটরিতে করোনা টেস্ট করা হচ্ছে। ১২ হাজার কোয়ারেন্টিন সেন্টার হয়েছে। পরিকাঠামো ও আর্থিক দিক থেকে মজবুত দেশগুলির তুলনায় ভারত করোনা মোকাবিলায় অনেকটাই এগিয়ে বলে মন্তব্য করেন মোদী।

এদিনের ভাষণে চিকিৎসক ও অন্য করোনা যোদ্ধাদের ভূয়সী প্রশংসা করে প্রধান মন্ত্রী বলেন, বেশ কয়েকটি ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে অনেকেই মাস্ক ছাড়া বাইরে যাচ্ছেন। যাঁরা এমন করছেন তাঁরা এটা মনে রাখুন আপনারা বাড়ির শিশু ও বয়স্কদের বিপদে ফেলছেন। আমরা দেখেছি আমেরিকা ও অন্য দেশে করোনা কমে গিয়ে ফের সংক্রমণ বেড়ে গিয়েছে। ফলে গাফিলতির পরিণাম মারাত্মক হতে পারে। সন্ত কবীর দাসের দোহা আবৃত্তি করে তিনি বলেন, যতক্ষণ পর্যন্ত মহামারির টিকা না আসছে ততক্ষণ করোনার সঙ্গে আমাদের লড়াই থামলে চলবে না।

 

Comments
Loading...