এসবিআইয়ের ভবিষ্যৎ কী? বছরের প্রথম সাত মাসে এসবিআইয়ে প্রায় ২৭ হাজার কোটি টাকা প্রতারণার ঘটনা

দিন দিন বেড়েই চলেছে ব্যাঙ্ক প্রতারণার ঘটনা। সাম্প্রতিক কালে দেশের সবচেয়ে বড় রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্ক, স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়াই (এসবিআই) আর্থিক জালিয়াতির ঘটনায় সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত। ইনিশিয়াল পাবলিক অফারিং (আইপিও)-র একটি রিপোর্ট বলছে, চলতি বছরের এপ্রিল থেকে অক্টোবর, এই সাত মাসে এসবিআইয়ে ব্যাঙ্ক প্রতারণার অঙ্ক ২৬ হাজার ৭৫৭ কোটি টাকা, যা ২০১৮-২০১৯ আর্থিক বছরের সঙ্গে তুলনা করলে দ্বিগুণেরও বেশি।
চলতি বছরের সাত মাসে আর্থিক প্রতারণার সঙ্গে ২০১৮ আর্থিক বছরের তুলনা করলে এই ফারাকটা আরও প্রকট হচ্ছে। তথ্য বলছে, ২০১৮ আর্থিক বছরে এসবিআই-য়ে আর্থিক জালিয়াতির অঙ্ক মাত্র ১৪৬ কোটি টাকা। এসবিআই-য়ের মতো ব্যাঙ্কে এই বিপুল আর্থিক প্রতারণা যে ব্যাঙ্কিং সেক্টরকে দুর্বল থেকে দুর্বলতর করে দিচ্ছে, তা একবাক্যে স্বীকার করছেন অর্থনৈতিক বিশেষজ্ঞরা। চলতি আর্থিক বছরে ৪৮ টি আর্থিক জালিয়াতির ঘটনা সামনে এসেছে, গত আর্থিক বছরে ছিল ২৫ টি এবং তার আগের আর্থিক বছরে এই সংখ্যা ছিল মাত্র আটটি। অর্থাৎ, প্রতি অর্থবর্ষে পালা করে এসবিআই থেকে আর্থিক জালিয়াতির সংখ্যা বিপজ্জনকভাবে বাড়ছে। ইংরেজি দৈনিক দ্য ইকোনমিক টাইমসের এক প্রতিবেদন অনুযায়ী, এসবিআইয়ের এক একটি আর্থিক প্রতারণার অঙ্ক ১০০ কোটি টাকারও বেশি। এই সময়কালে এসবিআই-য়ের পর পঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্কে সবচেয়ে বেশি আর্থিক প্রতারণা হয়েছে। সেখানে জালিয়াতির অঙ্ক আনুমানিক ১০ হাজার ৮২১ কোটি টাকা। বেশিরভাগ আর্থিক প্রতারণার ক্ষেত্রে বিভিন্ন কর্পোরেট সংস্থা যুক্ত। ব্যবসায় মন্দাজ কারণে বা ইচ্ছাকৃতভাবে ব্যাঙ্ক ঋণ নিয়ে নানা অছিলায় তা এড়িয়ে আসছে বেশ কিছু কর্পোরেট সংস্থা। ওয়াকিবহাল মহলের মতে, এসবিআইয়ের অনেক আর্থিক প্রতারণার ঘটনা বেশ কয়েক বছর আগের। এখন আরবিআই-র চাপে এক সঙ্গে তা সামনে আসছে।
ঋণখেলাপিদের নিয়ে সক্রিয় হওয়ার জন্য ব্যাঙ্কগুলিকে বারবার সচেতন করছে আরবিআই। ৫০ কোটি টাকার উপরে অমীমাংসিত এনপিএ-য়ের ক্ষেত্রে ব্যাঙ্কগুলিকে সব তথ্য খুঁটিয়ে পরীক্ষা করতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।
গত ১৯ নভেম্বর রাজ্যসভায় এক প্রশ্নের লিখিত জবাবে কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন জানিয়েছিলেন, ২০১৯ সালের এপ্রিল থেকে নভেম্বর মাস পর্যন্ত ব্যাঙ্কগুলি থেকে মোট ৯৫ হাজার ৭৬০ কোটি টাকা প্রতারণার অভিযোগ এসেছে। রাজ্যসভায় কেন্দ্রীয় অর্থ প্রতিমন্ত্রী অনুরাগ ঠাকুর জানিয়েছেন, এপ্রিল-জুন ত্রৈমাসিকে ব্যাঙ্কগুলিতে ২,৫০০ টি জালিয়াতির মামলা হয়েছে। এই ব্যাঙ্ক প্রতারণায় জড়িয়ে আছে প্রায় ৩২ হাজার কোটি টাকা। আর অধিকাংশ ব্যাঙ্ক জালিয়াতির অভিযোগ এসেছে এসবিআই থেকে। মোট ১,১৯৭ টি জালিয়াতির ঘটনায় এসবিআইয়ের প্রায় ১২ হাজার কোটি টাকা গিয়েছে বলে তথ্য দিয়েছিলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী।

 

Comments
Loading...