রাফাল যুদ্ধ বিমানের দাম এবং রিলায়েন্সের সঙ্গে চুক্তির তথ্য ১০ দিনের মধ্যে কেন্দ্রকে জমা দিতে বলল সুপ্রিম কোর্ট

রাফাল যুদ্ধ বিমানের দাম এবং অনিল আম্বানীর রিলায়েন্স ডিফেন্সের সঙ্গে ফরাসি সংস্থার চুক্তির নথি কেন্দ্রকে ১০ দিনের মধ্যে বন্ধ খামে জমা দিতে বলল সুপ্রিম কোর্ট। রাফাল যুদ্ধ বিমান কেনা নিয়ে আদালতের তত্ত্বাবধানে সিবিআই তদন্তের দাবিতে যে মামলা হয়েছিল, তার শুনানিতে বুধবার একথা জানাল দেশের শীর্ষ আদালত।
সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ জানান, রাফালের দাম সংক্রান্ত সমস্ত তথ্য এবং রিলায়েন্স ডিফেন্সের চুক্তি ১০ দিনের মধ্যে কেন্দ্রকে আদালতে জমা দিতে হবে। কেন্দ্রের পক্ষ থেকে সওয়ালে বলা হয়, যুদ্ধ বিমানের দাম সংসদেও জানানো হয়নি। এমনকী ইউপিএ সরকারের আমলে এই চুক্তি নিয়ে যে কথাবার্তা শুরু হয়েছিল, তখন যে দাম ধার্য হয়েছিল তাও সেই সময় সংসদকে জানানো হয়নি। এটা গোপনীয় বিষয়, যা বাইরে প্রকাশ করা হয় না।
রাফাল যুদ্ধ বিমান কেনা নিয়ে সরাসরি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ তুলেছেন রাহুল গান্ধী। কংগ্রেস সভাপতির অভিযোগ, রাফাল চুক্তিতে পছন্দের শিল্পপতি অনিল আম্বানীকে সুবিধে পাইয়ে দিয়েছেন মোদী। কেন্দ্রের অস্বস্তি বাড়িয়ে সম্প্রতি প্রাক্তন ফরাসি রাষ্ট্রপতি ফ্রাঁসোয়া ওলাদ বলেছিলেন, রিলায়েন্সকে অংশীদার করার জন্য ভারত সরকারের পক্ষ থেকে সুপারিশ করা হয়েছিল। তাই ফরাসি সরকারের কাছে কোনও বিকল্প ছিল না। যদিও পরে ফরাসি যুদ্ধ বিমান প্রস্তুতকারী সংস্থা ড্যাসল্ট অ্যাভিয়েশন তা অস্বীকার করে। শুধু তাই নয় ড্যাসল্ট অ্যাভিয়েশনের সিইও জানান, ভারত বা ফ্রান্সে যে কোনও তদন্তের মুখোমুখি হতে তাঁরা তৈরি।
কিন্তু প্রাক্তন ফরাসি রাষ্ট্রপতির মন্তব্যকে সামনে রেখে সম্প্রতি প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী যশোবন্ত সিংহ এবং অরুণ শৌরি রাফাল চুক্তিতে দুর্নীতির অভিযোগ তুলে সুপ্রিম কোর্টে মামলা করেন। রাফাল চুক্তিতে দুর্নীতি হয়েছে, এই অভিযোগে তাঁরা সিবিআই তদন্তও দাবি করেন। এমনকী সম্প্রতি সিবিআই প্রধান অলোক ভার্মাকে তাঁর পদ থেকে সরানোর পিছনে রাফাল তদন্ত একটা অন্যতম বিষয় বলে অভিযোগ করেছে কংগ্রেস এবং সিপিএম। রাহুল গান্ধী, সীতারাম ইয়েচুরিদের অভিযোগ, অলোক ভার্মা রাফাল নিয়ে তদন্তের কাজে হাত দিচ্ছিলেন, তাই তাঁকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। যদিও এদিন সুপ্রিম কোর্ট রাফাল নিয়ে তথ্য বন্ধ খামে জমা দেওয়ার জন্য কেন্দ্রকে নির্দেশ দিয়েছে, কিন্তু প্রধান বিচারপতি জানান, এই তথ্য মামলাকারীদের দেওয়া যাবে না।

Comments
Loading...