বিজেপির মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী হিসেবে ঘুরিয়ে নিজের নাম ভাসালেন তথাগত রায়! দেখা করলেন কৈলাস বিজয়বর্গীয়র সঙ্গে

গেরুয়া শিবিরের মুখ্যমন্ত্রী পদে প্রার্থী কে? সৌরভ গাঙ্গুলি, দিলীপ ঘোষ, স্বপন দাশগুপ্ত থেকে শুরু করে একাধিক নাম নিয়ে জল্পনা। পরিস্থিতি এমনই যে, রবিবার বৈঠক শেষে কেন্দ্রীয় স্তরের বিজেপি নেতা কৈলাস বিজয়বর্গীয়কে বলতে হয়েছে, কাউকে মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী না করেই ২০২১ সালে বিধানসভা ভোটে যাবে বিজেপি। এই পরিস্থিতিতে কার্যত ঘুরিয়ে মুখ্যমন্ত্রী পদে নিজের নাম ভাসিয়ে দিলেন তথাগত রায়।
সদ্য মেঘালয়ের রাজ্যপালের দায়িত্ব থেকে সরেছেন। রাজভবন ছেড়ে তথাগত রায় ফিরেছেন শহরে। আর ফিরেই নতুন বিতর্ক উসকে দিয়েছেন তিনি। রবিবার রাত সাড়ে ৯ টা নাগাদ একটি ট্যুইট করেন তথাগত। তাতে তিনি উল্লেখ করেন মতিলাল ভোরা, শীলা দীক্ষিত এবং অর্জুন সিংহের নাম।

কিন্তু কেন তিনি এ কথা বললেন? রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মতে, বঙ্গ বিজেপির প্রাক্তন সভাপতি তথাগত রায় এই তিনজনের নাম নিয়েছেন পরিকল্পনা করেই। কারণ এই তিনজনই রাজ্যপালের দায়িত্ব পালন করার পর বিভিন্ন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী হয়েছেন। দিলীপ ঘোষ, রাহুল সিনহাদের আগে বঙ্গ বিজেপির সভাপতির দায়িত্ব পালন করা তথাগত রায় এভাবেই অর্জুন সিংহ, মোতিলাল ভোরা ও শীলা দীক্ষিতের নাম করে ঘুরিয়ে আসন্ন বিধানসভা ভোটে নিজের মুখ্যমন্ত্রীত্বের দাবি জানিয়ে রাখলেন।
মেঘালয়ের সদ্য প্রাক্তন রাজ্যপালের এই ট্যুইটে আরও ইন্ধন যুগিয়েছে সোমবার তথাগতর কৈলাস বিজয়বর্গীয়র সঙ্গে সাক্ষাৎ। সঙ্গে ছিলেন মুকুল রায়। রাজ্যে দলের দায়িত্বপ্রাপ্ত কৈলাস বিজয়বর্গীয়ই অবশ্য রবিবার জানিয়েছিলেন নরেন্দ্র মোদীর মুখকে সামনে রেখেই বাংলায় ভোটে যাবে বিজেপি। আলাদা করে মুখ বাছা হবে না। ভোটে জিতলে সর্বসম্মতিক্রমে মুখ্যমন্ত্রী বাছা হবে। কিন্তু তার কয়েকঘণ্টার মধ্যেই কৌশলে নিজের মুখ্যমন্ত্রীত্বের দাবি জানিয়ে রেখে খেলা জমিয়ে দিয়েছেন তথাগত রায়। সেই জল্পনায় নতুন ইন্ধন যুগিয়েছে তারপরই মুকুল রায়কে সঙ্গে করে তথাগত রায়ের কৈলাস বিজয়বর্গীয়র সঙ্গে মোলাকাত। সবমিলিয়ে ভোটের ঠিক না হলেও, বিজেপির মুখ বাছতে নাজেহাল অবস্থা।

Comments
Loading...