খুলছে স্কুল-কলেজ! কী হবে স্কুলের সিলেবাস তা নিয়ে চিন্তিত পড়ুয়ারা! মাধ্যমিক-উচ্চ মাধ্যমিকের সিলেবাসে কি বদল?

শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় স্কুল কলেজ খোলার ঘোষণা করার পর থেকেই শুরু হয়েছে তোড়জোড়। তবে স্কুল খোলার ক্ষেত্রে আরেকটি বিষয়ে চিন্তা শুরু হয়েছে শিক্ষক থেকে ছাত্র সবার। স্কুল খোলা হলেও কী হবে তার সিলেবাস? বিশেষ করে আগামী বছরের মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিকের সিলেবাস। ইতিমধ্যেই কাটছাঁট করা হয়েছে সিবিএসই এবং সিআইএসসিই এর দুই স্তরের পরীক্ষার সিলেবাসে। সূত্র অনুসারে, রাজ্য পাঠ্যক্রম এবং পাঠ্যসূচি কমিটির পক্ষ থেকে সিলেবাস জমা দেওয়া হয়ে গিয়েছে। তবে তা এখনও আসেনি পড়ুয়াদের সামনে। করোনা পরিস্থিতির জন্য স্কুলে ক্লাস করানো সম্ভব হয়নি। তাই কী হবে পরীক্ষার সিলেবাস তা ভাবিয়ে তুলেছে ছাত্রছাত্রী থেকে অভিভাবক সকলকেই।

অন্যদিকে আরও একটি সমস্যার কথা উল্লেখ করেছেন শিক্ষকরা। উচ্চ মাধ্যমিকের বিজ্ঞান বিভাগের পড়ুয়াদের জন্য উচ্চ মাধ্যমিকের পরই থাকে ইঞ্জিনি়ারিংয়ের বা ডাক্তারির প্রবেশিকা পরীক্ষাও। ফলে সর্বভারতীয় স্তর অনুযায়ী ঠিক করতে হবে সিলেবাস। সেই পরিপ্রেক্ষিতে কিছুটা প্র্যাক্টিক্যাল ক্লাসেরও প্রয়োজন আছে। কিন্তু এই পরিস্থিতিতে তা সম্ভব নয়।

তবে সিবিএসই এবং আইসিএসসির পড়ুয়াদের সিলেবাস অনেকটাই কমানো সম্ভব হয়েছে। সেই দেখে বেশ স্বস্তিতে পড়ুয়ারা। তবে এই রাজ্যের পড়ুয়াদের ব্যাপারে এখনও সিদ্ধান্ত নেওয়া যায়নি। সেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকের পর। এই বৈঠকের দিকেই তাকিয়ে আছেন স্কুল শিক্ষা দপ্তরের আধিকারিক থেকে শুরু করে পড়ুয়া এবং অভিভাবকরা। অন্যদিকে এই পরিস্থিতিতে স্কুল খোলা একটি বড়ো চ্যালেঞ্জ হতে চলেছে সরকারের কাছে। নবম-দশম শ্রেণি মিলিয়ে রাজ্যজুড়ে প্রায় ৫০ লাখের বেশি ছাত্র-ছাত্রী আছে। সকলকে স্কুলে নিয়ে এসে পড়াশোনা করানো একটি বড়ো চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়াবে সরকারের সামনে।
প্রসঙ্গত, অন্যদিকে শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের কথা অনুযায়ী ডিসেম্বরে খুলে যেতে চলেছে কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয়। সেই নিয়ে বেশ উৎসাহী অধ্যক্ষরা। ইতিমধ্যেই তোড়জোড় শুরু হয়ে গিয়েছে।

Comments
Loading...