রেশনে ভর্তুকি কমানোর প্রস্তাব নীতি আয়োগের, তীব্র বিরোধ বিরোধীদের

নীতি আয়োগের রিপোর্টে গ্রামে ভর্তুকি প্রাপকের সংখ্যা কমিয়ে ৬০% এবং শহর এলাকার ক্ষেত্রে ৪০% করার সুপারিশ করা হয়েছে

রেশনে ভর্তুকি কমিয়ে আনার সুপারিশ জানিয়ে নীতি আয়োগ একটি রিপোর্ট জমা দিয়েছে। এই খবর প্রকাশ্যে আসতেই বিরোধিতা শুরু করেছে বিরোধী দলগুলি। রিপোর্ট অনুযায়ী, ২০১৩ সালে UPA সরকারের শাসনকালে খাদ্য আইন অনুযায়ী রেশনে যত সংখ্যক গ্রাহককে ভর্তুকি দেওয়া হয়, সেই সংখ্যা কমিয়ে আনতে হবে।

খাদ্য সুরক্ষা আইন অনুসারে, গ্রামের ৭৫% মানুষ এবং শহরের ৫০% মানুষ রেশনে ভর্তুকি পেয়ে থাকেন। নীতি আয়োগের রিপোর্টে গ্রামে ভর্তুকি প্রাপকের সংখ্যা কমিয়ে ৬০% এবং শহর এলাকার ক্ষেত্রে ৪০% করার সুপারিশ করা হয়েছে। বিরোধীদের অভিযোগ, এভাবেই দফায় দফায় রেশন ব্যবস্থায় সম্পূর্ণ ভর্তুকি তুলে দেওয়ার পরিকল্পনা করছে মোদী সরকার।
প্রস্তাবের পেছনে নীতি আয়োগের যুক্তি, আগের তুলনায় দেশের অর্থনীতি উন্নত হয়েছে, তাই রেশনে ভর্তুকির চাহিদাও কমেছে। পাশাপাশি তাদের দাবি, এর ফলে যারা প্ৰকৃত গরিব তাঁরা দেশের রেশন ব্যবস্থার সুযোগ পাবেন। এবং ভর্তুকি কমিয়ে আনার ফলে সরকারের যে পরিমাণ অর্থ সাশ্রয় হবে তা স্বাস্থ্য ও অন্যান্য খাতে ব্যয় করা যাবে।

২০২১ সালে রেশন গ্রাহকের সংখ্যা ৮৯.৫২ কোটি। নীতি আয়োগের প্রস্তাব মেনে নিলে দেশে রেশন গ্রাহক সংখ্যা কমে হবে ৭১.৬২ কোটি।

[আরও পড়ুন- প্রচারে গেরুয়া ঝড়: অমিত শাহ ৫০, মোদী ২০-২৫, রাজ্যে ৭০ জনসভার পরিকল্পনা বিজেপির]

নীতি আয়োগের পাশাপাশি, বিজেপি নেতা শান্তাকুমারের নেতৃত্বে একটি কমিটি গঠিত হয়েছে। এই কমিটিও রেশনে ভর্তুকি প্রাপকের সংখ্যা কমিয়ে আনার সুপারিশ জানিয়ে কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে একটি রিপোর্ট জমা দিয়েছে।

রান্নার গ্যাসের ভর্তুকি প্রাপকের সংখ্যা কমিয়ে আনায় বিরোধী দলগুলি কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে সরব হয়েছিল। জ্বালানির আকাশ ছোঁয়া দামের প্রতিবাদেও পথে নেমেছে বিভিন্ন দল। এসবের মধ্যেই নতুন করে রেশনে ভর্তুকি প্রাপকের সংখ্যা কমিয়ে আনার প্রস্তাবে কেন্দ্রীয় সরকারের তীব্র সমালোচনা করছে বিরোধী দলগুলি।

Comments
Loading...