বাংলা নিয়ে কেন্দ্র, রাজ্যপাল এবং বিজেপির ভূমিকা নিন্দনীয়, মমতার পাশে বিজেপির প্রাক্তন নেতা-মন্ত্রী যশবন্ত সিনহা

যেভাবে ভারত সরকার, বাংলার রাজ্যপাল এবং বিজেপি বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জিকে ‘টার্গেট’ করছেন তা প্রচণ্ড নিন্দনীয়। এভাবেই কেন্দ্রের বিজেপি ও রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়ের সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির মধ্যে তৈরি হওয়া সংঘাতকে বর্ণনা করলেন প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী তথা বিজেপির প্রাক্তন নেতা যশবন্ত সিনহা।
সোমবার নিজস্ব ট্যুইটার হ্যান্ডেল থেকে বিজেপি সরকারের প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী ও বিদেশমন্ত্রী যশবন্ত সিনহা লেখেন, করোনার জেরে দেশের কঠিন পরিস্থিতিতেও কেবলমাত্র রাজনীতির জন্য মমতাকে আক্রমণ করছে মোদী সরকার থেকে বিজেপি দল, এমনকী বাংলার রাজ্যপালও। যা এক কথায় নিন্দনীয়। বিজেপির প্রাক্তন শীর্ষ নেতার এই ট্যুইটবার্তা আবার রিট্যুইট করেন তৃণমূলের রাজ্যসভার নেতা ডেরেক ও’ ব্রায়েন।

করোনায় বাংলার চিকিৎসা ব্যবস্থা থেকে শুরু করে আক্রান্ত ও মৃতের সঠিক তথ্য নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি ও তাঁর সরকারের দিকে আঙুল তুলেছে বিজেপি। মৃত ও আক্রান্তের সঠিক তথ্য দেওয়া হচ্ছে না এবং আরও কয়েকটি অভিযোগ নিয়ে অবস্থান বিক্ষোভেও সামিল হয়েছেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষরা। এদিকে বাংলার করোনা পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে মোদী সরকারের পাঠানো কেন্দ্রীয় দলকে নিয়ে চূড়ান্ত সংঘাত শুরু হয় কেন্দ্র ও রাজ্যের মধ্যে। এই পরিপ্রেক্ষিতে মমতাকে পাঠানো রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়ের কড়া ভাষায় খোলা চিঠি সেই দ্বন্দ্বে ঘৃতাহুতি করেছে। রাজ্যের শাসক দলও পালটা প্রশ্ন তুলছে রাজ্যপালের সাংবিধানিক নিরপেক্ষতার নিয়ে।
সেইসঙ্গে কেন্দ্রীয় দলও পরিস্থিতি খতিয়ে দেখার নামে বিজেপির পথে রাজনীতি করছে এমনও অভিযোগ করেছেন তৃণমূল নেতৃত্ব। এই পরিস্থিতিতে রাজ্য সরকারের পাশে দাঁড়িয়ে বিজেপির প্রাক্তন নেতা যশবন্ত সিনহার ট্যুইট বার্তা যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা।
অটলবিহারি বাজপেয়ী সরকারের আমলে মন্ত্রী যশবন্ত সিনহা বরাবর মোদী সরকারের সমালোচক। দেশে লকডাউন থেকে শুরু করে করোনা ত্রাণে তৈরি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নামে নিজস্ব তহবিল, পিএম কেয়ারসের স্বচ্ছতা নিয়ে প্রকাশ্যে সমালোচনা করেছেন ২০১৮ সালে বিজেপি ত্যাগ করা যশবন্ত সিনহা।

Comments
Loading...