তামিলনাড়ুতে কৃষকদের জমিরক্ষার আন্দোলনে যোগ দিতে গিয়ে আটক সমাজকর্মী যোগেন্দ্র যাদব, পুলিশি হেনস্থার অভিযোগ

শনিবার তামিলনাড়ুর তিরুভান্নামালাইতে আন্দোলনরত কৃষকদের সঙ্গে দেখা করতে যাওয়ার পথে সমাজকর্মী ও রাজনীতিবিদ যোগেন্দ্র যাদবকে নিগ্রহের অভিযোগ উঠল সেই রাজ্যের পুলিশের বিরুদ্ধে। এদিন এক ট্যুইট বার্তায় তাঁকে নিগ্রহের কথা জানিয়েছেন এই সমাজকর্মী। জানা গেছে, ১০ হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে সালেম-চেন্নাই নয়া আট লেনের এক্সপ্রেসওয়ে নির্মাণের যে সিদ্ধান্ত তামিলনাড়ু সরকার নিয়েছে, তার বিরোধিতা করছিলেন তিরুভান্নামালাই এলাকার কৃষকরা। এদিন তাঁদের প্রতিবাদ কর্মসূচিতেই কৃষকদের সাথে দেখা করতে  যাচ্ছিলেন যোগেন্দ্র যাদব। তিনি জানিয়েছেন, ওই এলাকায় যাওয়ার পথে মাঝ রাস্তাতেই তাঁকে আটকে দেয় পুলিশ। করা হয় শারীরিক নিগ্রহ। অভিযোগ, তাঁকে বলপূর্বক গাড়ি থেকে নামিয়ে ধাক্কা দিয়ে পুলিশ ভ্যানে তোলা হয়। যোগেন্দ্র যাদব জানিয়েছেন, ওই কর্মসূচিতে যাওয়ার পথেই তিনি স্থানীয় প্রশাসনের সাথে ফোনে কথা বলে জানতে চাইছিলেন যে, কেন এলাকায় এত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে? আর কেনই বা কৃষকদের জমি বলপূর্বক ছিনিয়ে নেওয়ার অভিযোগ উঠছে। যোগেন্দ্রর দাবি, স্থানীয় কালেক্টরের সাথে তাঁর এই কথোপকথোনের কয়েক মিনিটের মধ্যেই তাঁকে পুলিশি হেনস্থার স্বীকার হতে হয়। যদিও পুলিশের দাবি, ওই এলাকায় যাওয়ার কোনও অনুমতি এই সমাজকর্মীর ছিল না, তাই তাঁকে আটকানো হয়েছে।
উল্লেখ্য সালেম-চেন্নাই এক্সপ্রেসওয়ে প্রকল্প ঘোষিত হওয়ার পর থেকেই এর বিরোধিতায় সরব হয়েছেন এলাকার বহু কৃষক ও সমাজকর্মী। কৃষকদের অভিযোগ, এই প্রকল্পের জন্য তাঁদের জমি জোর করে কেড়ে নেওয়ার চেষ্টা শুরু হয়েছে। পরিবেশবিদদের আশঙ্কা, এই প্রকল্পের জন্য হাজার হাজার গাছ কাটা পড়বে, যা পরিবেশের পক্ষে মারাত্মক। প্রাক্তন আপ নেতা ও বর্তমানে স্বরাজ ইন্ডিয়া নামে একটি রাজনৈতিক সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা সমাজ কর্মী যোগেন্দ্র যাদবের এই প্রতিবাদীদের সাথে দেখা করারই কর্মসূচি ছিল এদিন।

Comments
Loading...