হিংসা ও ঘৃণা ছড়ানোর অভিযোগে বিজেপি বিধায়ককে নিষিদ্ধ করল ফেসবুক, তিনি ২০১৭ বসিরহাট সংঘর্ষ নিয়েও পোস্ট করেছিলেন

বিজেপি ও ফেসবুকের গোপন ‘আঁতাত’ নিয়ে গত কয়েকদিন ধরে সরগরম দেশের রাজনৈতিক মহল। ‘হেট স্পিচ’ বা বিদ্বেষমূলক মন্তব্যের প্রচার নিয়ে নানা মহলে চাপের মুখে পড়ে এ বার কড়া পদক্ষেপ করল ফেসবুক কর্তৃপক্ষ। ফেসবুক পোস্টের মাধ্যমে হিংসা ও ঘৃণা ছড়ানোর অভিযোগে ফেসবুক ও ইনস্টাগ্রাম থেকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হল তেলেঙ্গানার একমাত্র বিজেপি বিধায়ক টি রাজা সিংহকে।
ই-মেলের মাধ্যমে একটি বিবৃতি দিয়ে ফেসবুকের মুখপাত্র জানিয়েছেন, ‘ফেসবুকের নীতি লঙ্ঘনের কারণে আমরা রাজা সিংহকে ব্যান করেছি। আমাদের প্ল্যাটফর্মে থেকে যাঁরা হিংসা ও ঘৃণা ছড়াবেন, তাঁদের নিষিদ্ধ করাটাই আমাদের নীতি।’ ওয়াকিবহাল মহলের মতে, ফেসবুকের বিরুদ্ধে যে পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ উঠেছে তা নস্যাৎ করে সব নীতি লঙ্ঘনকারীই যে তাদের কাছে এক, সেই বার্তা দিতেই বিজেপি বিধায়ক রাজা সিংহের ফেসবুক ও ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্ট ব্যান করা হল। ২০১৭ সালে বসিরহাটে সাম্প্রদায়িক সংঘর্ষের সময়ও তিনি বিদ্বেষমূলক পোস্ট করেছিলেন।

কে এই টি রাজা সিংহ?

তেলেঙ্গানা রাজ্যের একমাত্র বিজেপি বিধায়কটির নাম টি রাজা সিংহ। তেলেঙ্গানা দশম পার্টির প্রাক্তন এই নেতা এখন গোসামহল কেন্দ্রের বিজেপি বিধায়ক। সেই সঙ্গে তেলেঙ্গানা রাজ্য বিজেপির সভাপতিও বটে। একাধিকবার দেশের পরিযায়ী শ্রমিক এবং সংখ্যালঘুদের নিয়ে ঘৃণাজনক, উত্তপ্ত মন্তব্য করার অভিযোগ উঠেছে বিজেপি নেতার বিরুদ্ধে।

 

সোশ্যাল মিডিয়ায় কোন বক্তব্যের জেরে তাঁকে নিষিদ্ধ করল ফেসবুক কর্তৃপক্ষ? 

টি রাজার প্রায় সব পোস্টই ফেসবুক সরিয়ে দিয়েছে। তবে জানা গিয়েছে বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক ইস্যু নিয়ে ‘হেট স্পিচ’ করতেন তিনি। বিভিন্ন ফেসবুক পোস্ট ও ভিডিও-তে কখনও রোহিঙ্গা মুসলিম রিফিউজিদের হত্যা করার ডাক দিয়েছেন টি রাজা, কোনও পোস্টে দাবি করেছেন, মুসলিমরা দেশদ্রোহী। কোথাও আবার মসজিদ ভেঙে গুঁড়িয়ে দেওয়ার ডাক দিয়েছেন তেলেঙ্গানার বিজেপি বিধায়ক। ২০১৭ সালে বসিরহাটের বাদুড়িয়ায় সংঘর্ষের সময় টি রাজা সমস্ত হিন্দুকে একজোট হয়ে ২০০২ সালের গুজরাতের হিন্দুদের মতো ‘প্রতিক্রিয়া’ করতে বলেছিলেন। ওই বিজেপি নেতার বিরুদ্ধে ৬০ টির অভিযোগ দায়ের হয়েছে থানায়। যার মধ্যে বেশিরভাগই হেট স্পিচ ছড়ানোর অভিযোগে। যদিও ফেসবুক তাঁকে ব্যান করা নিয়ে টি রাজা সিংহের প্রাথমিক প্রতিক্রিয়া, ফেসবুক পেজটা তিনি নিজে চালান না।

Comments
Loading...