নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলের প্রতিবাদে উত্তপ্ত ত্রিপুরা, ইন্টারনেট, এসএমএস পরিষেবা বন্ধ

নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল বিরোধী প্রতিবাদ আন্দোলন ক্রমেই জোরালো হচ্ছে দেশের উত্তর-পূর্বের রাজ্যগুলিতে। ইতিমধ্যেই যার উত্তাপ ছড়িয়েছে ত্রিপুরা, অসমের বিভিন্ন আদিবাসী অধ্যুষিত এলাকায় এবং রাজ্যগুলির রাজধানীতে।
এরই মধ্যে এই বিলকে কেন্দ্র করে আদিবাসী সংগঠন গুলির নজিরবিহীন প্রতিবাদের ফলে কার্যত বেকায়দায় পড়তে হচ্ছে ত্রিপুরার বিপ্লব দেবের নেতৃত্বাধীন বিজেপি সরকারকে। পরিস্থিতি এতটাই জটিল হয়েছে যে মঙ্গলবার থেকে ৪৮ ঘণ্টার জন্য ইন্টারনেট ও এসএমএস পরিষেবা সম্পূর্ণ বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে ত্রিপুরা সরকার। ত্রিপুরা পুলিশের দাবি, সংঘর্ষের জেরে উত্তেজনা ছড়িয়েছে মনু, কাঞ্চনপুরের মতো বিভিন্ন এলাকায়। সেই উত্তেজনা যাতে অন্যত্র না ছড়ায় তাই আগাম সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। কিন্তু ঘটনা হল, সংসদে নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল নিয়ে যতই উত্তর-পূর্বের আদিবাসীদের সন্তুষ্ট করার চেষ্টা করুন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, উত্তর-পূর্বের রাজ্যগুলিতে কিন্তু এই বিলের প্রতিবাদের আগুন ছড়াতে শুরু করেছে।
ক্রমে আগুনে আন্দোলন ছড়াচ্ছে উত্তর-পূর্বের রাজ্যগুলিতে। প্রতিবাদে পথে নেমেছেন আদিবাসীরা, বিভিন্ন গণ সংগঠন, ছাত্র সংগঠনের সদস্যরা। সাধারণ মানুষও এই বিলের বিরোধিতায় পথে নামতে শুরু করেছেন। হচ্ছে পথ অবরোধ, রেল অবরোধ, রাস্তায় টায়ারে আগুন জ্বালিয়ে প্রতিবাদ।
সোমবারই লোকসভায় দাঁড়িয়ে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ জানিয়েছেন, নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল পাস হলেও তা উত্তর পূর্বের বিস্তীর্ণ অংশে লাগু হবে না। তাই সেখানকার আদিবাসীদের নাগরিকত্ব হারানোর ভয় নেই। কিন্তু ত্রিপুরাজুড়ে ইতিমধ্যেই এই আন্দোলন বেকায়দায় ফেলতে শুরু করেছে বিপ্লব দেব সরকারকে।

Comments
Loading...