দিল্লিতে একই পরিবারের ১১ জনের অস্বাভাবিক মৃত্যু, তদন্ত শুরু করল পুলিশ।

রবিবার সকালে উত্তর দিল্লির বুরারি এলাকার একটি বাড়ি থেকে ১১ জনের মৃতদেহ উদ্ধার করল পুলিশ। মৃতদের মধ্যে ৭ জন মহিলা ও ৪ জন পুরুষ। সংবাদসংস্থা সূত্রে খবর, রবিবার সকালে ২৪ সন্ত নগরের একটি বাড়ি থেকে দেহগুলি পাওয়া যায়। মৃতরা সকলেই একই পরিবারের সদস্য। মৃতদের মধ্যে রয়েছেন ৭৫ বছর বয়স্ক এক প্রবীণ এবং তিনটি শিশু। দিল্লি পুলিশ সূত্রে খবর, উদ্ধার হওয়া প্রতিটি দেহ ঝুলন্ত অবস্থায় পাওয়া যায়। সবার চোখ ও মুখ কাপড়ে বাঁধা ছিল। ওই পরিবারের সদস্যদের মুদিখানা ও কাঠের দোকান রয়েছে। স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, প্রতিদিন ভোর ছটায় নিয়ম করে দোকান খোলা হত। কিন্তু রবিবার সকাল সাড়ে সাতটা বেজে যাওয়ার পরও দোকান না খোলায় সন্দেহ হয় এক প্রতিবেশীর। এরপর তিনি ওই বাড়িতে গিয়ে দেখতে পান এই মর্মান্তিক দৃশ্য। খবর দেওয়া হয় পুলিশে। দিল্লি পুলিশের জয়েন্ট কমিশনার (সেন্ট্রাল রেঞ্জ) রাজেশ খুরানা জানিয়েছেন, এটি আত্মহত্যা নাকি খুনের ঘটনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। দেহগুলি ময়না তদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। এছাড়াও খতিয়ে দেখা হচ্ছে সিসিটিভির ফুটেজ। মেলেনি কোনও সুইসাইড নোট।

Comments
Loading...