স্বৈরাচারী পথে চলছে কেন্দ্র, মাথা নত করব না, লড়াই চলবে, সাংসদদের সাসপেন্ড নিয়ে সরব মমতা, ট্যুইটে বিঁধলেন কেন্দ্রকে

স্বৈরাচারী সরকার গণতান্ত্রিক নিয়ম নীতির তোয়াক্কা করে না, কিন্তু মাথা নত করব না, রাজ্যসভার ৮ সাংসদকে সাসপেন্ড করা নিয়ে তীব্র প্রতিক্রিয়া তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির।
মোদী সরকারের কৃষি সংস্কারের দুই বিলের বিরুদ্ধে রাজ্যসভায় বিক্ষোভ দেখানোর অভিযোগে ৮ সংসদের সাসপেন্ড নিয়ে সোমবার এক ট্যুইটে মোদী সরকারকে চাঁচাছোলা ভাষায় আক্রমণ করেন মমতা। ট্যুইটারে মুখ্যমন্ত্রী লেখেন, কৃষকদের স্বার্থ রক্ষার জন্য লড়াই করা ৮ সাংসদকে সাসপেন্ড করা দুর্ভাগ্যজনক এবং স্বৈরাচারী সরকারের মানসিকতার প্রতিফলন যা গণতান্ত্রিক নিয়ম ও নীতিকে সম্মান করে না। তবে আমরা মাথা নত করব না। সংসদ থেকে রাস্তায় এই ফ্যাসিবাদী সরকারের বিরুদ্ধে আমরা লড়াই করব। ট্যুইটের শেষে হ্যাশট্যাগ দিয়ে মমতা লেখেন গণতন্ত্রকে হত্যা করেছে বিজেপি।

মোদী সরকারের কৃষি সংস্কারের দুই বিল নিয়ে রবিবার প্রবল শোরগোল শুরু হয় রাজ্যসভায়। বিরোধীদের দাবি ছিল এই বিল পাঠাতে হবে সিলেক্ট কমিটির কাছে। কিন্তু বিলের ব্যাপারে অর্ডিনান্স জারি করে ফেলা মোদী সরকার বাদল অধিবেশনেই বিল পাশ করানোর সিদ্ধান্ত নেয়। সংসদের উচ্চকক্ষে তুমুল হট্টগোল শুরু হয়ে যায়। ধ্বনিভোটে বিল পাশ করানোর সময় উত্তেজনার পারদ আরও চড়ে। রুল বুক নিয়ে ওয়েলে নেমে পড়েন বিরোধী সাংসদরা। ডেরেক রুল বুক নিয়ে ছুটে যান ডেপুটি চেয়ারম্যান হরিবংশের কাছে। শুরু হয়ে যায় ধস্তাধস্তি। রাজ্যসভা ১০ মিনিটের জন্য মুলতুবি করে দেওয়া হয়।
সোমবার অধিবেশনের শুরুতেই রাজ্যসভা থেকে অবশিষ্ট অধিবেশনের জন্য সাসপেন্ড করা হয় তৃণমূলের ডেরেক ও’ব্রায়েন, দোলা সেন, সিপিএমের কে কে রাগেশ, এলামারাম করিম কংগ্রেসের রাজীব সতাব, রিপুন বোরা, সৈয়দ নাসির হোসেন এবং আপের সঞ্জয় সিংহের মতো ৮ সাংসদকে। যার মূলে কেন্দ্রের বিজেপি সরকারের স্বৈরাচারী মনোভাবের প্রকাশ এবং গণতান্ত্রিক নীতির অসম্মান বলে অভিযোগ করলেন তৃণমূল নেত্রী।

Comments
Loading...